kalerkantho

horror-club-banner

হরর ক্লাব : দ্য মোর হাউসের ভৌতিক রহস্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ এপ্রিল, ২০১৭ ১৬:৫৯



হরর ক্লাব : দ্য মোর হাউসের ভৌতিক রহস্য

দ্য মোর হাউস নামটির সঙ্গেই যেন মিশে আসে ভৌতিক বিষয়। এ বাড়িতে বেশ কিছু রহস্যময় ঘটনার কথা জানা যায়। আর এর পেছনে কী রয়েছে তা নিয়ে অনেকেরই কৌতুহল। তবে এ বাড়িটির ভৌতিক হয়ে ওঠার পেছনে রয়েছে করুণ কাহিনী।
দ্য মোর হাউস নামে পরিচিত এই বাড়িতে ১৯১২ সালে একসঙ্গে আটজনকে খুন করা হয়। খুন করার পদ্ধতিটাও ছিল ভয়ানক। প্রত্যেকের মাথায় একটি করে কুঠার ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। নিহতদের মধ্যে ছিলেন জসিয়াহ বি মোর, তার স্ত্রী সারা, তাদের সন্তান হারমান, ক্যাথরিন, ভয়েড এবং পল। আরও ছিলেন তাদের বাসায় বেড়াতে আসা দুজন মেহমান।
মর্মান্তিক সে ঘটনার পর থেকে এ বাড়িতে নানা রকম অস্বাভাবিক ব্যাপার ঘটার তথ্য পাওয়া গেছে। বেশিরভাগ মানুষের কথা অনুযায়ী ভূতুড়ে ব্যাপারগুলোর কোনো ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি।


যেসব ভূতুড়ে কাহিনীর জন্য বাড়িটি বিখ্যাত সেগুলোর মধ্যে রয়েছে রাতের বেলা বাচ্চাদের আওয়াজ। কারা যেন রাতের বেলা বাড়িজুড়ে দৌড়ে বেড়ায়। বাড়ির ভেতর থেকে গভীর রাতে ট্রেন যাওয়ার মতো আওয়াজ পাওয়া যায়। যদিও বাড়িটি রেললাইন থেকে বহু দূরে।
ধারণা করা হয়, খুনি যখন সেই আটজনকে মেরেছিল তখন তাদের মরণ চিৎকার ঢাকার জন্য খুনি কোনোভাবে ট্রেনের মতো বিকট শব্দ তৈরি করেছিল। সে সময় মি. মোরের সন্তানেরা ছোট ছিল, তাই হয়তো বাড়িতে পাওয়া যাওয়া সেই বাচ্চাদের দৌড়ানোর আওয়াজ তাদের পায়ের হতে পারে। অতৃপ্ত আত্দা, যা আটকা পড়ে আছে এখনো সেই বাড়িতে। তবে খুনি কে ছিল সে সম্পর্কে আজ পর্যন্ত কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।


মন্তব্য