kalerkantho


এই সহজ ধাঁধার সমাধান করে জিতে নিন ৮ কোটি ১২ লাখ টাকা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৫:০৮



এই সহজ ধাঁধার সমাধান করে জিতে নিন ৮ কোটি ১২ লাখ টাকা!

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট অ্যান্ড্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ঘোষণা করেছেন কেউ যদি বিখ্যাত ‘কুইনস পাজল’ ধাঁধাটি দ্রুত সমাধানের একটি কম্পিউটার প্রোগ্রাম তৈরি করতে পারেন তাহলে তা পুরো আইটি বা তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পকে বদলে দিবে। এই কাজটি কেউ করতে পারলে তাকে যুক্তরাষ্ট্রের ক্লে ম্যাথমেটিকস ইনস্টিটিউট এর পক্ষ থেকে ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ৮ কোটি ১২ লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে।

কুইনস পাজল খুবই সহজ একটি ধাঁধা। আপনি কি একটি দাবার বোর্ডে আটটি কুইন এমনভাবে স্থাপন করতে পারবেন যেন কোনো কুইন অন্য কোনো কুইনকে আক্রমণ করতে না পারে? সুতরাং একই সারি, কলাম বা কর্ণে একাধিক কুইন রাখা যাবে না। এই ধাঁধাটি প্রথম আভির্ভুত হয় ১৮৫০ সালে। আর একটু ধৈর্য্য আছে এমন যে কোনো মানুষই এই ধাঁধাটির সমাধান করতে পারবেন।

কিন্তু তাহলে সমস্যাটা কোথায়? কম্পিউটার এই ধাঁধাটির সমাধান সহজে করতে পারে না। কম্পিউটার সম্ভাব্য সব অপশনের মধ্য দিয়ে যায়। আর যত বেশি অপশন থাকবে ততই কম্পিউটারের জন্য এর সমাধান বের করা কঠিন হয়ে উঠবে।

জার্নাল অফ আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স এর মতে, দাবার বোর্ডটির আকার ১০০০ বাই ১০০০ হলেই কম্পিউটার আর এর সমাধানে কুলিয়ে উঠতে পারে না।

সেন্ট অ্যান্ড্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই গবেষণা দলের প্রধান অধ্যাপক আইয়ান জেন্ট এক বিবৃতিতে বলেন, ‘কেউ যদি এমন কোনো কম্পিউটার প্রোগ্রাম লিখতে পারে যা এই সমস্যাটি খুব দ্রুত সমাধান করতে পারবে তাহলে আমাদের দৈনন্দিন জীবনকে প্রভাবিত করে এমন অনেক গুরুত্বপূর্ণ সমস্যাও সহজে সমাধান করা যাবে এর মাধ্যমে।

‘এর মাধ্যমে আপনার ফেসবুক ফ্রেন্ডদের মধ্যে সবচেয়ে বড় গ্রুপটি কারা যারা পরস্পরকে চিনেন না, এমন একটি তুচ্ছ সমস্যা যেমন সমাধান করা সম্ভব হবে তেমনি আমাদের সকল অনলাইন ট্রানজেকশন নিরাপদ রাখার জন্য কোড ক্র্যাক করার মতো গুরুত্বপূর্ণ কাজও করা যাবে দ্রুত। ’

পি বনাম এনপি-র মতো বিখ্যাত কম্পিউটার সমস্যারই একটি ভিন্ন রুপ এটি। এর মূল কথাটি হলো: যেসব সমস্যা দ্রুত যাচাই করা সম্ভব সেসবকি দ্রুত সমাধানও সম্ভব? উদাহরণত, যদি বলা হয়, ৪,১৯৯ এর ভাজকগুলো বের করুন তাহলে তা করতে আপনার বেশ একটু সময় লাগবেই। কিন্তু ৪,১৯৯ যে শুধু ১৩, ১৭ এবং ১৯ দিয়েই বিভাজ্য তা যাচাই করতে অতটা সময় লাগবে না। তাই না?

অনেকেরই বিশ্বাস, সব সমস্যাই যত দ্রুত যাচাই করা সম্ভভ হয় তত দ্রুত সমাধানও করা সম্ভভ হয় না। কিন্তু আপনি যদি মনে করেন আপনি এমন কোনো কম্পিউটার অ্যালগরিদম লিখতে পারবেন যা এই কাজ করতে পারবে অথবা যদি প্রমাণ করতে পারবেন এমন কোনো অ্যালগরিদম লেখা সম্ভব নয়, তাহলে বিজ্ঞানীরা আপনাকেই খুঁজছেন।

‘কেউ যদি প্রমাণ করতে পারেন কুইনস পাজল দ্রুত সমাধান করা সম্ভব বা সম্ভব নয় তাহলে তার জন্য রয়েছে ১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের পুরস্কার’, বলেছেন গবেষণাটির সহকারি প্রধান ড. ক্রিস্টোফার জেফারসন।

সুতরাং, কম্পিউটার বিজ্ঞানী এবং প্রোগ্রামিং প্রেমিকরা আজই কোডিংয়ের কাজে লেগে পড়ুন!

সূত্র: ডেইলি মেইল এবং আইএলএফ সায়েন্স


মন্তব্য