kalerkantho


বিশ্বজুড়ে মহিলারা যে কারণে টুইটার বর্জন করছেন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ১৯:১৯



বিশ্বজুড়ে মহিলারা যে কারণে টুইটার বর্জন করছেন

বিশ্ব জুড়ে অনেক নারী আজ শুক্রবার ঘোষণা দিয়ে টুইটার বর্জন করছেন। তারা এই পদক্ষেপ নিয়েছেন অভিনেত্রী রোজ ম্যাকগোয়ানের টুইটার একাউন্ট সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়ার প্রতিবাদে।

অভিনেত্রী রোজ ম্যাকগোয়ান বলছেন, তিনি হলিউডের প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন এক টুইটে। এরপর তার একাউন্টটি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয় টুইটার।

হলিউড সহ বিশ্বের শোবিজ জগতে এখন তোলপাড় চলছে হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে একের পর এক ধর্ষণ, যৌন নিপীড়ন ও হয়রানির অভিযোগ ফাঁস হওয়ার পর। নিউ ইয়র্ক এবং লন্ডনের পুলিশ ইতোমধ্যে কোন কোন অভিযোগের তদন্তও শুরু করেছে।

টুইটার অবশ্য রোজ ম্যাকগোয়ানের একাউন্ট বন্ধের ব্যাখ্যা দিয়ে বলেছে, তিনি টুইটার একাউন্টের শর্তাবলী ভঙ্গ করেছেন। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই অভিযোগ করেছেন, হার্ভে উইনস্টেইনের মতো প্রভাবশালী লোকের বিরুদ্ধে মুখ খোলায় টুইটার রোজ ম্যাকগোয়ানের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নিয়েছে।

হার্ভে উইনস্টেইন হচ্ছেন হলিউডের সবচেয়ে প্রভাবশালী সিনেমা প্রযোজকদের একজন। বারাক ওবামা, হিলারি ক্লিনটন থেকে শুরু করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী ও ক্ষমতাবানদের তিনি ঘনিষ্ঠ বন্ধু। ডেমোক্রেটিক পার্টিতে মোটা অংকের তহবিল যোগান দেন যারা, তাদেরও অন্যতম তিনি।

কিন্তু বহু বছর ধরে তিনি তার সিনেমায় কাজ করতে আসা মহিলা তারকাদের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে তাদের সঙ্গে জবরদস্তি করে যৌন সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করেন বলে একের পর এক অভিযোগ আসছে। অভিনেত্রী রোজ ম্যাকগোয়ানও টুইটারে হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন।

টুইটার তাঁর একাউন্টটি বন্ধ করে দেয়ার পর বহু মহিলা সংহতি জানিয়ে টুইটার ব্যবহার বন্ধ রেখেছেন।

#WomenBoycott হ্যাশট্যাগটি আজ কয়েক ঘন্টার মধ্যে এক লাখ নব্বুই হাজার বার শেয়ার হয়েছে।

যারা টু্‌ইটার বর্জনের ডাক দিয়েছেন তাদের মধ্যে আছেন অনেক বিখ্যাত তারকা।

এদের অনেকে কিভাবে টুইটারে নারী বিদ্বেষী মন্তব্য এবং হয়রানির শিকার হয়েছেন তারও উল্লেখ করেছেন।

অভিনেত্রী টারা স্ট্রং বলেছেন, ওরা রোজ ম্যাকগোয়ানের একাউন্ট বন্ধ করছে, অথচ এই লোকের (হার্ভে উইনস্টেইন) একাউন্ট বন্ধ করছে না।

তবে অন্য অনেকে যুক্তি দিচ্ছেন যে এভাবে মহিলাদের টুইটার বর্জন করে কোন লাভ হবে না। মহিলাদের বরং আরও বেশি করে টুইটারে সরব হওয়া দরকার এর প্রতিবাদ জানাতে।

- বিবিসি বাংলা


মন্তব্য