kalerkantho


আইফোন এক্স : অনন্য সাধারণ যন্ত্র, তবে সাবধান!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ নভেম্বর, ২০১৭ ১৫:৪১



আইফোন এক্স : অনন্য সাধারণ যন্ত্র, তবে সাবধান!

অ্যাপল তাদের বিশেষ আইফোন এক্স ঘোষণার পর থেকেই প্রযুক্তিবিশ্ব এর প্রতীক্ষায় ছিল। সেই প্রতীক্ষার অবসান ঘটেছে সম্প্রতি।

স্বাভাবিকভাবেই ফোনটা হাতে পাওয়ামাত্রই বিশেষজ্ঞরা এর ভালো-মন্দ বিচার-বিশ্লেষণে বসে পড়েছেন। তবে একটি বিষয়ে সবাই একমত। তা হলো আইফোনের ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আসা এই বিশেষ সংস্করণ ফোনটি নিঃসন্দেহে অ্যাপলের ইতিহাসের সেরা ফোন। শুধু তাই নয়, বিশ্বের সবচেয়ে আকাঙ্ক্ষিত একটি ফোন। এ কারণেই তো বাজারে আসার আগেই অগ্রিম বুকিংয়েই শেষ হয়ে আইফোন এক্স।  

লাখ টাকা দামের এ ফোনটি কিন্তু আইফোনের সবচেয়ে দামি ফোনও। সংক্ষিপ্ত স্পেসিফিকেশনটি জেনে নেওয়া যাক। এর আছে ৫.৮ ইঞ্চি ওলেড ২৪৩৬x১১২৫ পিক্সেল রেজ্যুলেশনের ডিসপ্লে। আছে ৪৫৮পিপিআই এবং ত্রিমাত্রিক টাচ।

দেওয়া হয়েছে এ১১ বায়োনিক চিপ। অভ্যন্তরে ৬৪ এবং ২৫৬ জিবি স্টোরেজ মিলবে। আরো আছে ৩ জিবি র‍্যাম। পেছনে ১২ মেগাপিক্সেলের দুটো সেন্সর। আর সামনে ৭ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।  

যত উত্তেজনাই থাক না কেন, সবকিছুরই ভালো-মন্দ দিক রয়েছে। আইফোন এক্স-ও তার ব্যতিক্রম নয়। তবে ভালো দিকটাই বেশি দেখা ভালো। হাজারো দিক থেকে তার ব্যাখ্যা দেওয়া যায়। এর ডিজাইনটা অনন্য। ঝকঝকে একটা চেহারা যা খুব কম ফোনেরই আছে। এর আইকনিক হোম বাটন আর নেই। সেই সঙ্গে পর্দার চারদিকে কোনো জায়গাই রাখা হয়নি। পুরোটাই স্ক্রিন। এবারের ওলেড স্ক্রিনটা নির্দ্বিধায় বলা যায়, অন্য অনেক ফোনের চেয়ে সেরা। হোমবাটন না থাকার করণে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর চলে গেছে, আর এসেছে ফেসআইডি। এই ফোনটি কিন্তু ভবিষ্যতের অনেক কিছুই দিয়ে দিয়েছে যা হয়তো আগামীর আইফোনগুলোতে মিলবে।  

আরো যে দুটো আইফোন ৮ এবং ৮ এক্সএল এসেছে, তার চেয়ে যে বেশি শক্তিশালী ফোন তা হয়তো অনেকেই মানবেন না। কিন্তু অনন্য তো বটেই। এত ব্যাপক ব্যাখ্যা না দিয়েও অনায়াসে বলা যায়, প্রযুক্তি দুনিয়ায় আইফোন এক্স এক আইকন হয়েই থাকবে।  

মন্দ 
গবেষণার মাধ্যমে বিশেষজ্ঞরা কিন্তু এর কিছু মন্দ দিকও তুলে এনেছেন। যত স্টাইলিশ ফোনই হোক না কেন, এটাকে নিয়ে সহজে চলাফেরা খুব কঠিন। দুই পাশেই গ্লাসের নিরাপত্তা দেওয়া আছে। খুবই শক্তিশালী গ্লাস দেওয়া হয়েছে। তাই যখন তখন হাত থেকে পিছলে পড়া অস্বাভাবিক নয়। আর যত শক্ত গ্লাসই থাক না কেন, এক কোথাও সামান্য চিড় ধরলেও কী তা আর সহ্য হবে! কিছু নতুন নতুন অপশন দেওয়া হয়েছে। এগুলোতে অভ্যস্ত না হওয়া পর্যন্ত দারুণ ঝক্কি পোহাতে হবে। এই ফোনে পাওয়ার বাটন নেই। তবে 'জেশ্চার' রয়েছে যা দিয়ে কাজ সারতে হবে। যদিও এ কাজটাকেই বেশি উপভোগ্য মনে হবে। পেছনের ক্যামেরা একটু উঁচু। তাই হাতে লাগবে। এতে কিছুটা বিরক্তি আসতে পারে।  

তবুও, দাম দিয়ে ভালো কোনো ফোন কিনতে চাইলে আইফোন এক্স এক অসাধারণ ফোন। তাই বলে যে এটা লাগবেই তা বলা হচ্ছে না। মন্দ দিকগুলো বিবেচনা করলে অনেকেই ভাবতে পারেন, এত টাকা দিয়ে এই ফোন না কিনলেই বা কী? কাজেই সাবধান! কেনার আগে অসুবিধাগুলো আরেকবার বিবেচনা করে নিন।
সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস 


মন্তব্য