kalerkantho


প্রযুক্তি

ভার্চুয়াল রিয়ালিটিতে ৭ই মার্চ

মুহম্মদ খান    

৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১১:২৬



ভার্চুয়াল রিয়ালিটিতে ৭ই মার্চ

'এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম'। ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ পূর্ব পাকিস্তানের বাঙালিদের স্বাধীনতাসংগ্রামে প্রস্তুত হওয়ার জন্য তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানের দেওয়া রোমকূপে শিহরণ জাগানো বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ এবার রূপান্তরিত হচ্ছে ভার্চুয়াল রিয়ালিটিতে (ভিআর)।

কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে। ৬ ডিসেম্বর শুরু হতে যাওয়া ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের উদ্বোধনী দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর অ্যাপ্লিকেশনের (অ্যাপ) সংক্ষিপ্ত সংস্করণ উদ্বোধন করবেন। আপাতত শুধু ভার্চুয়াল রিয়ালিটি অ্যাপ ছাড়া হচ্ছে। ভার্চুয়াল রিয়ালিটি এবং অগমেন্টেড রিয়ালিটির পূর্ণাঙ্গ সংস্করণ একযোগে প্রকাশ করা হবে আগামী ৭ই মার্চ। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ পলক কালের কণ্ঠকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতা-পরবর্তী প্রজন্ম ৭ই মার্চের সেই ভাষণ রেসকোর্স ময়দানে উপস্থিত থেকে শুনতে বা দেখতে পারেনি। ভার্চুয়াল রিয়ালিটি অ্যাপটি 'ভিআর' ডিভাইসে চালু করলে দর্শকরা সশরীরে রেসকোর্স ময়দানে উপস্থিত থেকেই ভাষণটি শুনছে- এমন অনুভূতি পাবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অনুভব করতে পারবে আরো কাছ থেকে। সবাইকে এমন সুযোগ করে দেওয়ার জন্যই আধুনিক এই প্রযুক্তির সহায়তা নেওয়া হচ্ছে।

আইসিটি ডিভিশনের উদ্যোগ ও সহযোগিতায় বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান রাইজ আপ ল্যাবস এই ভার্চুয়াল রিয়ালিটি অ্যাপ তৈরি করছে।

রাইজ আপ ল্যাবসের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী এরশাদুল হক জানান, অ্যাপটির সম্পূর্ণ সংস্করণে ৭ই মার্চের ভাষণটির অডিও বাংলাতেই থাকছে। তবে ইংরেজি সাবটাইটেল থাকবে। মোবাইলের জন্য অ্যাপটি অ্যানড্রয়েড ও আইওএস স্টোরে, কম্পিউটারের জন্য অকুলাস রিফট ভিআর

(Oculus Rift VR) এবং স্টিম স্টোর (Steam Store)-‰ দেওয়া হবে। তবে অগমেন্টেড রিয়ালিটি অ্যাপটি থাকবে শুধু অ্যানড্রয়েড ও আইওএস স্টোরে। ফলে পুরো পৃথিবীর মানুষ নতুন প্রযুক্তির মাধ্যমে ৭ই মার্চের ভাষণের মর্যাদা এবং ইতিহাস জানতে পারবে।

ভার্চুয়াল রিয়ালিটি হচ্ছে একটি বিশেষ প্রযুক্তি, যা একটি ভার্চুয়াল বা কল্পিত পরিবেশে ব্যবহারকারীর শারীরিক উপস্থিতি তৈরি করে এবং বাস্তবিক ছবি, শব্দ ও অন্যান্য ইন্দ্রিয়ের অনুভূতি দেয়। ভার্চুয়াল রিয়ালিটি সরঞ্জাম ব্যবহার করে একজন ব্যক্তি কৃত্রিম জগতের চারপাশে বাস্তবরূপে দেখতে ও সরাসরি যোগাযোগ তৈরি (ইন্টারঅ্যাক্ট) করতে পারে।

সম্প্রতি ইউনেসকো ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চে দেওয়া শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণটিকে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। মূলত বিশ্বের তথ্যভিত্তিক ঐতিহ্যগুলোকে সংরক্ষণ এবং পরবর্তী প্রজন্ম যাতে তা থেকে উপকৃত হতে পারে সে লক্ষ্যেই এ তালিকা প্রণয়ন করে ইউনেসকো।


মন্তব্য