kalerkantho


২০১৭-তে বিশ্ব বাজারকে ঝাঁকুনি দিয়েছিল যে ৫টি স্মার্টফোন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৮:০০



২০১৭-তে বিশ্ব বাজারকে ঝাঁকুনি দিয়েছিল যে ৫টি স্মার্টফোন

এ বছর পুনরায় ফের আরেকবার স্মার্টফোন উৎপাদকরা প্রসেসিং পাওয়ার, ক্যামেরা, অডিও কোয়ালিটি এবং অন্যান্য বিষয়ে আগের সীমা আরেকটু ছাড়িয়ে গিয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক চলতি বছরে বাজারে আসা এমন পাঁচটি শীর্ষমানের স্মার্টফোন সম্পর্কে যেগুলো আগের সেই সীমাকে ছাড়িয়ে গেছে।

১. স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৮
এই স্মার্টফোনটি গ্যালাক্সি নোট ৭ এর বিস্ফোরোন্মুখ ব্যাটারির কারণে ব্যবসায় ভাটা পড়ার পর পুনরায় স্যামসাংয়ের বাজার চাঙ্গা করে তুলেছে। গত বছরের সেপ্টেম্বরে বাজারে আসা ফোনটিতে আছে ৬.৩ ইঞ্চি ইনফিনিটি ডিসপ্লে যাতে একইসঙ্গে দুটি উইনডো খোলা রাখা যায়। স্মার্টফোনটিতে আছে দুটি ডুয়াল মেইন ক্যামেরা। দুটো ক্যামেরাতেই আছে ২x অপটিক্যাল জুম এবং অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন।

স্টাইলাসটি একটি প্র্যাকটিক্যাল এডিশন যা দিয়ে নোট তৈরি করা, ডকুমেন্ট অ্যানোটেট করা এবং ভিডিও থেকে স্ক্রিনশট বা জিআইএফ তৈরি করা যায়।

২. অ্যাপল আইফোন এক্স


আইফোনের দুনিয়ায় চিরতরে সবচেয়ে বড় ডিজাইন পরিবর্তন এনেছে ফোনটি। স্মার্টফোনের বাজারে ২০১৭ সালের সবচেয়ে বড় রিলিজ ছিল এটি। এটি অ্যাপলের প্রথম স্মার্টফোন যার ৫.৮ ইঞ্চির স্ক্রিনের পুরোটাজুড়েই আছে ডিসপ্লে। স্মার্টফোনের দুনিয়ায় এমন ডিসপ্লে এটাই প্রথম। এছাড়া অ্যাপলের স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে এই ফোনেই প্রথম ফেসিয়াল রিকগনিশন টেকনোলজি (ফেস আইডি) এবং ইনডাকশন চার্জিং যুক্ত করা হয়।

৩. গুগল পিক্সেল


সেরা স্মার্টফোন ক্যামেরার র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ স্থান দখল করে নেয় গুগল পিক্সেল ২। অ্যান্ড্রয়েড ওরিও (৮.০) অপারেটিং সিস্টেমও প্রথম বাজারে নিয়ে আসে পিক্সেল ২ সিরিজের ফোন। বিখ্যাত ক্যামেরা-রেটিং কম্পানি ডিএক্সওমার্ক এর র‌্যাঙ্কিংয়ে ফোনটি ক্যামেরার জন্য শীর্ষ স্থান দখল করে নেয়। পিক্সেল ২ ৯৮/১০০ স্কোর নিয়ে প্রথম স্থান দখল করে নেয়। আর আইফোন এক্স ৯৭/১০০ স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকে।

৪. হুয়াওয়ে মেট ১০ প্রো


হুয়াওয়ের সর্বশেষ ফ্ল্যাগশিপ এই স্মার্টফোনে সর্বপ্রথম কিরিন ৯৭০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। যাতে বিশ্বের প্রথম একটি নিউরাল প্রসেসিং ইউনিট (এনপিইউ) ব্যবহৃত হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে প্রথম কোনো স্মার্টফোনে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি ব্যবহার করা হলো। এছাড়াও স্মার্টফোনটি হুয়াওয়ে এবং লেইকার মধ্যে সহযোগিতা বজায় রেখেছে একটি প্রধান ডুয়াল ক্যামেরার মাধ্যমে। একটি ক্যামেরা ২০ মেগাপিক্সেলের অপরটি ১২ মেগাপিক্সেলের। আর প্রতিটি ক্যামেরার অ্যাপারচার এফ/১.৬।

৫. ওয়ান প্লাস ৫টি


নভেম্বরে বাজারে আসা ফোনটি আগের ওয়ান প্লাস ৫ এর চেয়ে একটু বড় এবং বুস্টেড সংস্করণ। ওয়ান প্লাস ৫ বাজারে এসেছিল বছরের শুরুতে। ফোনটিতে সর্বশেষ সংস্করণের সব প্রযুক্তি ব্যবহৃত হয়েছে। ফোনটির দাম মার্কেট লিডার অ্যাপল, স্যামসাং এবং হুয়াওয়ের তুলনায় একটু কমই রাখা হয়েছে।

ওয়ান প্লাস ৫টি-তে আছে ১৮:৯ অ্যাসপেক্ট রেশিও সহ ৬ ইঞ্চি এজ-টু-এজ অ্যামোলেড স্ক্রিন এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে চারপাশের আলোর পরিস্থিতির সঙ্গে এডজাস্ট করতে সক্ষম প্রযুক্তি। ফোনটিতে সর্বোচ্চ ৮জিবি র‌্যাম এবং কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ প্রসেসর। ফোনটি আনলক করার জন্য আছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিডার এবং ফেসিয়াল রিকগনিশন দুটোই।


মন্তব্য