kalerkantho


জোকস : নাক-কাটা মনতাজের ভাগ্নে!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ জুলাই, ২০১৭ ১৫:২২



জোকস : নাক-কাটা মনতাজের ভাগ্নে!

                                                (১)

ঝন্টু : এমন জিনিসের নাম বল যা সারাজীবন তোরই থাকবে কিন্তু তোর স্ত্রীর হবে না?

পিন্টু : দোষ।

ঝন্টু : ঠিক বলেছিস!

                                                (২)

আকাশে ঝড়ের কবলে পড়েছে উড়োজাহাজ।

এয়ার হোস্টেস এসে জিজ্ঞেস করল : ঝড় থেকে বাঁচার দোয়া কেউ জানেন?

মন্টুর বাপ হাত তুলল : আমি জানি, ম্যাম!

বিমানবালা : তাহলে আপনি দোয়া পড়তে থাকেন, স্যার! বাকি সবাই লাইফ জ্যাকেট পাবেন। আমাদের লাইফ জ্যাকেট একটা কম আছে তো...

                                               (৩)
রেস্টুরেন্টের এক ওয়েটার কখনো আদালতের কর্মকাণ্ড দেখেনি। একবার বিচার চলছে এমন এক এজলাসে গিয়ে দর্শকের আসনে বসল সে। ওদিকে, দুই পক্ষের উকিলের তর্কাতর্কির ফলে আদালত তখন সরগরম- শোরগোল করছে অনেকেই। জজ সাহেব টেবিলে কাঠের হাতুড়ি পিটিয়ে বললেন, অর্ডার অর্ডার!

ওয়েটার তড়াক করে দাঁড়িয়ে বলল : এক কাপ চা দুইটা সিঙ্গারা, বস! 

                                                (৪)
শিক্ষক : আকাশে সবচেয়ে দ্রুত ওড়ে এমন পাঁচটি পাখির নাম বলত হিটলু?

হিটলু : স্যার... আকাশে সবচেয়ে দ্রুত ওড়ে স্যার... ইয়ে... মনে পড়ছে স্যার, মুরগি, হাঁস, খরগোশ, বেড়াল... বেড়াল... আর স্যার, হ্যাঁ মনে পড়েছে... উড়োজাহাজ!

শিক্ষক : এতো দেখছি বিদ্যা আর বুদ্ধির জাহাজ! তুই কার ছেলেরে বাপ?

হিটলু : স্যার, আমি নাক-কাটা মনতাজের ভাইগনা...

শিক্ষক : তাইলে তো উত্তর ঠিকই আছে! সাবাস, আপনে এইবার বসেন, বাবা...

                                                (৫)
ডাক্তার : আপনার একসঙ্গে তিনটা দাঁত কীভাবে পড়ল?

রোগী : বউ শক্ত রুটি বানিয়েছিল তো...

ডাক্তার : তো খাবেন না বলে দিলেই তো হতো!

রোগী : সেটাই তো করেছিলাম, স্যার! এরপর হাতের বেলুন দিয়ে... উঁ...উঁ...
 


মন্তব্য