kalerkantho


জোকস: বললে বিশ্বাস করবেন না...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ জুলাই, ২০১৭ ২২:৫৬



জোকস: বললে বিশ্বাস করবেন না...

                                                 (১)

ডাক্তারের চেম্বারে এসই রোগী বেশ চেঁচামেচি জুড়ে দিলেন। কথা বলছেন বেশ জোড় দিয়ে।

ডাক্তার সাহেব, অবস্থা তেমন ভাল না আমার!

কী হয়েছে ম্যাডাম? বলুন দেখি...

বিষয়টি একটু অন্যরকম। মানে গত কয়দিন যাবৎ আমার প্রচুর বায়ূত্যাগ হচ্ছে...

হুম... সে তো বুঝতে পারছি। কিন্তু...

না, ডাক্তার সাহেব, আপনি বুঝতে পারছেন না। কারণ, বড় সমস্যা হচ্ছে- এটা যখন ঘটছে তখন কোনো শব্দ হচ্ছে না এবং দুর্গন্ধও পাওয়া যাচ্ছে না। এটা অস্বাভাবিক না!

হুম...

বললে বিশ্বাস করবেন না- আপনার চেম্বারে আসার পর থেকে আমি এ পর্যন্ত দশবার... কিন্তু আপনি টেরও পান নাই- কারণ, দুর্গন্ধও নাই, আওয়াজও নাই...

ডাক্তার ওষুধ লিখে দিয়ে বললেন: নিয়মিত ওষুধ খাবেন আর একসপ্তাহ বাড়ি থেকে বের হবেন না।

এক সপ্তাহ পর রোগী ফের এল: ডাক্তার সাহেব, কী ওষুধ দিলেন! এখন তো বায়ুত্যাগ করলে মনে হচ্ছে বাথরুম করে দিয়েছি- এত দুর্গন্ধ হয়... যে মনে হয়...

আর শব্দ?

না, শব্দ হচ্ছে না।

ভেরি গুড! তার মানে আপনার নাকের সমস্যা দূর হয়েছে। এরপর আজ দেব কানের ওষুধ। দু’দিনেই আশপাশের সব শব্দ শুনতে পাবেন...

অ্যাঁ! তার মানে...

জ্বী, আপনার সমস্যা হচ্ছে নাকে ও কানে, অন্য কোথাও নয় ম্যাডাম...   

                                                  (২)
মাঝে-মধ্যে স্মার্টনেসে মন্টু তার বাপকেও ছাড়িয়ে যায়।

যেমন, সেদিন সকালের ঘটনা-

মন্টু: বাবা বাবা! ফেসবুকে আমার ৫টা ফেক আইডি আছে!

মন্টুর বাপ: চুপ বেয়াদ্দপ! এই কথা আমারে শুনাইতে আইছস ক্যান। পড়াশোনা নাই নাকি?

মন্টু: আছে বাবা, কিন্তু বলতে চাইছিলাম...

মন্টুর বাপ: আবার বলতে চাইছিলাম কী! বল, বইলা দূর হ তাড়াতাড়ি...

মন্টু: যে রিয়াকে গত এক মাসে দশবার ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট আর ইনবক্স কইরা পেরেশান করতেছো- হেইটা কইলাম আমি...

মন্টুর বাপ: বাপ আমার! এইদিকে আয়। তুই না ক্রিকেট ব্যাট কিনতে চাইছিলি একটা... কত দাম জানি ওইটার... কালকেই ব্যাট পায়া যাবি...

মন্টু: বাবা, তুমি এত ভাল কেন!

                                                (৩)
মন্টুর বাপ: স্যার, বৌ আমাকে নিয়ে তাজমহল দেখতে যাইতে চায়। এক সপ্তাহের ছুটি মঞ্জুর করতে হইবো।

বস: এক বছরের আগে কোনো ছুটি নাই। কাজে মন দিন গিয়ে।

মন্টুর বাপ: অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা, স্যার। আমি জানতাম- এই মুসিবতের কবল থেইকা একমাত্র আপনিই আমারে বাঁচাইতে পারেন!


মন্তব্য