kalerkantho


জোকস : বাঙালির ভালোবাসা- বড় আজব এক খেলা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ আগস্ট, ২০১৭ ১৩:৫০



জোকস : বাঙালির ভালোবাসা- বড় আজব এক খেলা!

                                                (১)

নবদম্পতি খোশগল্প করছে। নববধূ খুশিতে বাগবাগ।

 

নববধূ : শোনো জানু, সপ্তাহের সাতটি দিন আমরা সাতভাবে কাটাব- মানে বেড়াব! 

বর : অবশ্যই!

নববধূ : তুমি কোনো বাধা দিতে পারবা না, কোনো অজুহাত চলবে না!

বর : ঠিক আছে।

নববধূ : সপ্তাহে অন্তত একদিন মার্কেটিংয়ে নিবা আমারে। এর বাইরে শনিবার আমরা মহল্লার চটপটি দোকানে ফুচকা-চটপটি খাব, রবিবার রাতে বিরিয়ানি-মোগলাই খাবার, সোমবার কাবাব-বারবিকিউ, মঙ্গলবার মেক্সিকান আর স্প্যানিশ ডিশ, বুধবার ইতালিয়ান আর চাইনিজ, বৃহস্পতিবার ইন্ডিয়ান আর দেশি হলেও চলবে...

বর : আর শুক্রবার আমরা গুলিস্তানে গোলাপশাহ মাজারের সামনে যাব!

নববধূ : কেন? কেন? ওখানে কেন?

বর : ভিক্ষা করতে। কারণ, তোমার সপ্তাহের খরচ তো তুলতে হবে...

                                                (২)

স্ত্রী : তুমি একটু আমার দিকে ঘুরে শোও না, প্লিজ!

স্বামী : কেন?

স্ত্রী : আমার ভয় ভয় করছে। তুমি সামনে থাকলে শান্তিতে ঘুমাইতাম।

স্বামী : তুমি শুধু তোমার কথাটাই ভাবলে? সেটা করলে যে আমার সারা রাত ভয়ে কাটবে- তা দেখেবে কে?

                                                (৩) 

মন্টুর বাপের ডায়েরি থেকে : বাঙালির ভালোবাসা বড় আজব এক খেলা! কেন? শুনুন তাহলে- এই ভালোবাসা ঠিক মতো মাকে দেখালে সবাই বলে, পোলা তো খুবই ভালো, মাকে রীতিমতো পূজা করে! বাপকে ঠিক ঠিক ভালোবাসা দেখালে সবাই বলে- বাহ! বাপরে তো পুরাই পীর-মুর্শিদ মানে পোলা! সুপুত্র এরেই কয়! ভাইরে ঠিক মতো ভালোবাসা দেখালে সবাই বলে- ভাইয়ের মতো ভাই হয়েছে একটা! ইমুন ভাই লাখে একটা মেলে না। বোনকে ঠিক মতো ভালবাসা দেখালেই এলাকাজুড়ে সুনাম ছড়ায়- বাহ! ভাই হলে এমনই হতে হয়, ঠিক যেন বাপের ভূমিকা পালন করছে। এমন ভাইকে মাথায় তুলে রাখা উচিত বোনদের।  

কিন্তু যখনি বউকে ঠিক মতো ভালোবাসা দেখাতে যাবেন, শুরু হয়ে যাবে ফুসুর-ফাসুর- শালা তো বউয়ের গোলাম হয়া গেছে- পুরাই কৃতদাস একখান! ছি. ছি.... পুরুষ জাতির কলঙ্ক! এমনকি আপনার শাশুড়িও মনে মনে বলবেন, জামাই তো একটা ভেড়া...


মন্তব্য