kalerkantho


লক্ষ্মীপুরের সেই লাভু কারামুক্ত

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

২৩ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০



লক্ষ্মীপুরের সেই লাভু কারামুক্ত

লক্ষ্মীপুরের আলোচিত আবদুল জব্বার লাভু কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন। প্রায় সাড়ে সাত বছর পর গতকাল রবিবার দুপুরে গাজীপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ছাড়া পান তিনি।

ওই কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মিজানুর রহমান কালের কণ্ঠকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

লাভু ও তাঁর সহযোগীদের নৈরাজ্যে একসময় লক্ষ্মীপুর সন্ত্রাসের জনপদ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছিল। লাভু ছিলেন লক্ষ্মীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা আবু তাহেরের বড় ছেলে কারাবন্দি এইচ এম বিপ্লবের ঘনিষ্ঠ বন্ধু হিসেবেও তিনি পরিচিত।

লাভুর ঘনিষ্ঠজনরা গতকাল সন্ধ্যায় জানিয়েছে, সবার সহযোগিতা নিয়ে লাভু স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চান।

কয়েক দিন ঢাকায় অবস্থান করার পর তিনি সৌদি আরবে যাবেন ওমরাহ পালন করতে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, শিবির নেতা মহসিন হত্যা মামলায় লাভুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছিল। দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর তিনি ২০১০ সালের ৪ এপ্রিল লক্ষ্মীপুর জেলা আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। পরে তাঁর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১২ সালে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি সাজা কমিয়ে দেন।

এ ছাড়া জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম হত্যা মামলাসহ অন্য মামলায় লাভু উচ্চ আদালত থেকে খালাস পান।

লক্ষ্মীপুর কারাগার সূত্রে জানা যায়, গত ৫ এপ্রিল ভোরে লাভুকে লক্ষ্মীপুর কারাগার থেকে গাজীপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। কারাগারের অভ্যন্তরে বিভিন্ন ধরনের বেআইনি কাজ ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপপ্রয়াসে লিপ্ত থাকায় বিভিন্ন গোয়েন্দা প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ওই ব্যবস্থা নেওয়া হয়। একই সময়ে তাহেরপুত্র যুবলীগ নেতা এইচ এম বিপ্লবকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এবং জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ নুরুল আজিম বাবরকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এ পাঠানো হয়। বিপ্লব একটি আলোচিত হত্যা মামলায় ফাঁসির আদেশ থেকে রাষ্ট্রপতির ক্ষমা পেয়েছিলেন। বিপ্লবের প্রায় দুই বছর এবং বাবরের তিন বছর সাজা ভোগ বাকি রয়েছে বলে জানা গেছে।


মন্তব্য