kalerkantho


বসার জায়গা নেই, ব্যাংকের পরীক্ষা ভণ্ডুল ভাঙচুর

এক কেন্দ্রে আগামী শনিবার ফের পরীক্ষা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বসার জায়গা নেই, ব্যাংকের পরীক্ষা ভণ্ডুল ভাঙচুর

বাংলাদেশ ব্যাংকের অধীন সমন্বিত আট ব্যাংকের পরীক্ষায় আসন সংকুলান না হওয়ায় রাজধানীর মিরপুরের শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার চাকরিপ্রার্থীরা কেন্দ্রে আসন না পেয়ে ভাঙচুর করে। পরে ওই কেন্দ্রের পরীক্ষার নতুন তারিখ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। এই কেন্দ্রের পরীক্ষা আগামী ২০ জানুয়ারি দুই কেন্দ্রে নেওয়া হবে।

ব্যাংকার্স রিক্রুটমেন্ট কমিটির সদস্যসচিব বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক মোশাররফ হোসেন খান রাতে কালের কণ্ঠকে বলেন, ৬১টি কেন্দ্রের মধ্যে শাহ আলী কেন্দ্রে কিছুটা ঝামেলা হয়েছে। পরে জরুরি সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে আগামী ২০ জানুয়ারি নতুন প্রশ্নপত্রে ওই কেন্দ্রের পাঁচ হাজার ৬০০ প্রার্থীর পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। শাহ আলী মহিলা কলেজের পাশাপাশি মিরপুর বাঙলা কলেজে আসনবিন্যাস করা হবে। দুই কেন্দ্রে বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত পরীক্ষা নেওয়া হবে।

জানা গেছে, শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পাঁচ হাজার ৬০০ চাকরিপ্রত্যাশীর পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল। প্রতি বেঞ্চে পাঁচ-ছয়জন করে বসানোর পরও অনেকের জায়গা হয়নি। এ অবস্থায় প্রতিবাদী হয়ে ওঠে প্রার্থীরা। ভাঙচুর শুরু করে কলেজে। একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। শাহ আলী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘জায়গা না হওয়ায় কেন্দ্রের ভেতর ঝামেলা হয়েছে। পরে পরীক্ষার্থীরা বাইরে গণ্ডগোল করতে গেলে আমরা সরিয়ে দিয়েছি।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রাষ্ট্রায়ত্ত আট ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার, অফিসার ও ক্যাশ অফিসার পদে নিয়োগের এই সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগকে। এক রিট আবেদনে এ পরীক্ষা হওয়া নিয়ে সংশয় তৈরি হলেও শেষ মুহূর্তে সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালতের আদেশে এই নিয়োগ পরীক্ষার পথ তৈরি হয় বৃহস্পতিবার। আগের ঘোষণা অনুযায়ী রাজধানীর ৬১টি কেন্দ্র গতকাল বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়া হয়। এক ঘণ্টায় ১০০ নম্বরের এই এমসিকিউ পরীক্ষার মধ্য দিয়ে আটটি ব্যাংকে মোট এক হাজার ৬৬৩টি শূন্যপদে নিয়োগ হওয়ার কথা।


মন্তব্য