kalerkantho


সৌদি নারীরা প্রথম ফুটবল মাঠে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সৌদি নারীরা প্রথম ফুটবল মাঠে

ছবি: ইন্টারনেট

সৌদি আরবের নারীরা একটু একটু করে ছিঁড়ছে কঠোর নিষেধের বেড়াজাল। এরই মধ্যে তারা পেয়েছে গাড়ি চালানোর অধিকার। আর গতকাল শুক্রবার তারা প্রথমবারের মতো মাঠে বসে উপভোগ করেছে ফুটবলের মতো জনপ্রিয় খেলা। শুধু তা-ই নয়, এ সপ্তাহেই প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সৌদি নারীদের স্কোয়াশ টুর্নামেন্ট।

মধ্যপ্রাচ্যের প্রচণ্ড রক্ষণশীল দেশটিতে পরিবর্তন আনতে কাজ করে যাচ্ছেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। তাঁর ব্যাপক সংস্কার কর্মসূচির

ধারাবাহিকতায় এবার সে দেশের নারীরা পেয়েছে মাঠে বসে খেলা উপভোগের স্বাধীনতা। প্রাপ্তবয়স্ক নারীরা চাইলে পুরুষ অভিভাবক ছাড়াও মাঠে প্রবেশ করতে পারবে। একা খেলা দেখতে আসা নারীদের জন্য মাঠে, স্টেডিয়ামে রয়েছে আলাদা আসন ব্যবস্থাও। তাদের জন্য তো বটেই, পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে মাঠে খেলা দেখার জন্য নির্ধারিত আসন রয়েছে। ফলে মায়েরা চাইলে সন্তানদের নিয়েও খেলা উপভোগ করতে পারবেন।

সৌদি নারীরা গতকাল আনুষ্ঠানিকভাবে সেই স্বাধীনতা উপভোগের সূচনা করেছে। রাজধানী রিয়াদে কিং ফাহাদ স্টেডিয়ামে গতকাল স্থানীয় সময় রাত ৮টায় সৌদি প্রফেশনাল লিগের আল-আহলি বনাম আল-বাতিন ম্যাচের রেফারির বাঁশি বেজে ওঠার অনেক আগেই নারী ফুটবল ভক্তরা হাজির হয়ে যায় মাঠে।

নারী দর্শকদের জন্য এ সপ্তাহেই থাকছে আরো দুটি ফুটবল ম্যাচ উপভোগের আমন্ত্রণ। একটি আজ শনিবার জেদ্দার কিং আবদুল্লাহ স্পোর্টস সিটিতে আল-হিলাল বনাম আল-ইত্তিহাদ এবং অপরটি আগামী বৃহস্পতিবার পূর্বাঞ্চলীয় দাম্মাম নগরীর প্রিন্স বিন ফাহাদ স্টেডিয়ামে আল-ইত্তিফাক বনাম আল-ফাইসালি ম্যাচ।

ফুটবল-ভক্ত ৩২ বছর বয়সী লামিয়া খালেদ নাসের বলেন, ‘এ ঘটনায় প্রমাণিত হলো, আমরা এক সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। এ ব্যাপক পরিবর্তনের সাক্ষী হতে পেরে আমি ভীষণ গর্বিত।’

রুবাইদা আলী কাশেম গতকালের দিনটিকে ‘ঐতিহাসিক’ অ্যাখ্যা দেন। তাঁর মতে, সৌদি আরব মৌলিক পরিবর্তনের সর্বোচ্চ শিখরে আরোহণ করছে। তিনি বলেন, ‘অন্যান্য দেশের মতো সভ্যতাকে আপন করে নেওয়ার জন্য এ দেশের প্রচেষ্টা এবং এ উন্নয়নের জন্য আমি গর্বিত আর ভীষণ খুশি।’

ভাইকে খেলার মাঠ থেকে ফিরতে দেখে যিনি একসময় ভীষণ আক্ষেপ করতেন, সেই নুরা বাখারজি বলেন, ‘আজ পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে। আজ সুখ আর আনন্দের দিন।’

সৌদি নারীরা আজও অনেক ক্ষেত্রেই স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার থেকে বঞ্চিত। এর পরও ধীরলয়ের পরিবর্তনকে স্বাগত জানিয়ে সুযোগটুকু কাজে লাগাতে তারা বদ্ধপরিকর। প্রত্যয়ী সৌদি নারীরা কেবল খেলা দেখা নয়, অংশ নিচ্ছে খোদ খেলাধুলায়ও। গত নভেম্বরে তারা জেদ্দায় বাস্কেটবল টুর্নামেন্টে অংশ নেয়। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।



মন্তব্য