kalerkantho


ঢাকার বাইপাস সড়ক আট বছর সংস্কারহীন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ঢাকার বাইপাস সড়ক আট বছর সংস্কারহীন

দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে বেহাল ঢাকা বাইপাস সড়কের উলুখোলা অংশ। ছবি : কালের কণ্ঠ

ভারী ট্রাক, লরিসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের অব্যাহত চাপে দীর্ঘদিন ধরেই বেহাল ঢাকা বাইপাস সড়ক। বিটুমিন উঠে গিয়ে ভেতরের পাথর সরে গেছে। স্থানে স্থানে তৈরি হয়েছে গর্ত। কোথাও বা হাঁ করে আছে বড় বড় খাদ। দীর্ঘদিন ধরেই এমন দুরবস্থায় পড়ে থাকলেও দীর্ঘ আট বছরে এই সড়কে সংস্কারের হাত পড়েনি। বারবার ব্যয় প্রাক্কলন করা হলেও আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় আটকে আছে সংস্কারকাজ। আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে সংস্কার করা না হলে সড়কটি পরিত্যক্ত হয়ে যাবে বলে বিষয়টি সড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে।

সড়কটি সংস্কারে ঢাকা সড়ক বিভাগ ১২ বার প্রাক্কলন তৈরি করে। ব্যয় ধরা হয় ২২ থেকে ২৫ কোটি টাকা। ঢাকা সড়ক বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আব্দুস সবুর জানান, ঢাকা বাইপাস সড়কের পিপিপি প্রকল্পের কাজ জুলাই থেকে শুরু হওয়ার কথা। এ জন্য আপাতত বড় ধরনের মেরামতকাজ করা হচ্ছে না।

ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ১০ চাকার ভারী ট্রাক বাইপাস সড়কটি ব্যবহার করে উত্তরাঞ্চলে চলাচল করছে। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর সড়ক বিভাগে পড়েছে সড়কটি। এর মধ্যে ঢাকা অংশের ১০ কিলোমিটারের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ। সড়কটির নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর অংশে এরই মধ্যে তিনবার বড় ধরনের সংস্কারকাজ করা হয়েছে। অথচ ঢাকা অংশের ১০ কিলোমিটারে একবারও সংস্কারের হাত পড়েনি।

সওজ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, দেশের বিভিন্ন জেলার বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলার মালবাহী ট্রাক ও ট্যাংক লরির চাপে সড়কটি বহু আগে থেকেই বেহাল হয়ে আছে। বিশেষ করে কাঞ্চন সেতু থেকে উলুখোলা সেতু পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার সড়কের খুবই বেহাল। স্থানীয় সড়ক বিভাগ ২০০৮ সালে সড়কের উন্নয়নকাজ করেছিল। তারপর আর কোনো কাজ হয়নি। জোড়াতালি দিয়ে সড়কটি সচল রাখা হয়েছে। কোনো চালক প্রাইভেট কার ও মাইক্রোবাস পারতপক্ষে এই সড়কে চালাতে চায় না।


মন্তব্য