kalerkantho


স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায় কৈশোরের খাদ্যাভ্যাস, দাবি গবেষকের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ১৮:২২



স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায় কৈশোরের খাদ্যাভ্যাস, দাবি গবেষকের

ছবি : ইন্টারনেট থেকে

কৈশোরের খাদ্যাভ্যাসের সাথে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ার প্রবণতা রয়েছে বলে দাবি করেছে গবেষকরা। তাদের মতে বয়ঃসন্ধিতে স্বাস্থ্যকর খাবার না খাওয়া এবং অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার ও কোমল পানীয় গ্রহণ স্তন ক্যান্সের ঝুঁকি বাড়ায়।

 

ক্যান্সার এপিডেমিওলজি, বায়োমার্কার অ্যান্ড প্রিভেনশন পত্রিকায় প্রকাশিত একটি গবেষণা থেকে জানা যায়, যেসব নারী কৈশোরে বা তরুণ বয়সে দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহের সঙ্গে জড়িত খাবার খায় না তাদের চেয়ে যারা কৈশোরে বা তরুণ বয়সে দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহের সঙ্গে জড়িত খাবার খায় তাদের প্রিমেনোপোজাল স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি। অর্থাৎ যারা কৈশোরে সবজিবহুল খাবার কম খান এবং উচ্চ চিনিযুক্ত মিষ্টি খাবার ও কোমল পানীয় গ্রহণ করেন তাদের মধ্যে ‘প্রিমেনোপোজাল’ বা রজোনিবৃত্তির আগেই স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি থাকে।

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, লস অ্যাঞ্জেলেস ফিল্ডিং স্কুল অব পাবলিক হেলথ’য়ের অধ্যাপক কারিন মাইকেলস বলেন, আমাদের গবেষণার ফলাফল সুপারিশ করে যে, অভ্যাসগত খাদ্যাভ্যাস কৈশোরে বা প্রাথমিক পর্যায়ে দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহ বাড়াতে পারে যা মেনোপোজের আগেই অল্প বয়স্ক নারীদের স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়। তিনি বলেন, স্তন ক্যান্সার প্রকাশ পেতে অনেক সময় নেয়, প্রাথমিক অবস্থায় নারীর খাদ্যাভ্যাস স্তন ক্যান্সারে ঝুঁকি বাড়ায় কিনা এ বিষয়ে আমরা যথেষ্ট কৌতূহলী।

এই গবেষণায় জন্য মাইকেল ও তার সহকারীরা ১৯৯৮ সালে নার্স হেলথ স্টাডি ২’ য়ে নথিভুক্ত ৪৫ হাজার ২শ’ ৪ জন নারী যারা ‘ফুড ফ্রিকুয়েন্সি কোয়েশ্চেনিয়ার’ সম্পন্ন করেছেন তাদের তথ্য ব্যবহার করেন। ১৯৯১ সালে ফুড ফ্রিকুয়েন্সি কোয়েশ্চেনিয়ারের সাহায্যে প্রাপ্ত বয়স্কদের খাদ্যাভ্যাস মূল্যায়ণ করা হয়। অংশগ্রহণকারীদের বয়স ২৭ থেকে ৪৪ এর মধ্যে এবং প্রতি চার বছর পর পর তা পুনরায় পরীক্ষা করা হয়।

 


মন্তব্য