kalerkantho


৬ উপায়ে বছরটা হোক সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৭:০৩



৬ উপায়ে বছরটা হোক সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর

জীবনের কিছু মৌলিক নিয়ম-কানুন বদলে এই বছরটাকে জীবনের সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর বছর বানিয়ে ফেলতে পারেন। আসলে নতুন বছর শুরুর আগে থেকেই এ সংক্রান্ত পরামর্শ দিচ্ছিলেন বিশেষজ্ঞরা। সেখান থেকে বেছে বেছে এমন কিছু পরামর্শের কথা এখানে তুলে ধরা হলো যা আপনার কাছে বেশ ভালো লাগবে। 

প্রতিদিন রঙধনু খান
চমকে ওঠার দরকার নেই। খাবারের পাতটাকে বিভিন্ন রংয়ের খাবারের সমাহার ঘটানোর কথা বলা হচ্ছে। আর অবশ্যই রঙিন প্রক্রিয়াজাত খাবার কিনবেন না। সবুজ, হলুদ বা লাল ফল কিংবা সবজি কিনুন। এসব খাবারে নানা ধরনের ভিটামিন ও খনিজে পূর্ণ। এরা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিসহ দেহের আকার-আকৃতি স্বাস্থ্যকর পর্যায়ে ধরে রাখবে। 

আরো পড়ুন: সড়ক দুর্ঘটনায় পড়লে যা করবেন

সপ্তাহে একদিন কেবলই সবজি 
খাদ্য তালিকা বদলানোর জন্যে হোক, কিংবা স্বাদের ভিন্নতায় হোক- সপ্তাতে অন্তত একদিন কেবল সবজি খাবেন। অন্য কিছু না খেলেও চলবে। সবজিতে ভিটামিন, খনিজ আর ফাইবার মিলবে। এতে পেটের সমস্যা কাটবে। পেটের স্বাস্থ্যও সব সময় ভালো থাকবে। 

অ্যালকোহল ও ধূমপানে লাগাম দিন
যাদের অভ্যাস আছে তাদের অবশ্যই ছেড়ে দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। তবে এ বছরের মধ্যে অবশ্যই এই দুই ক্ষতিকর নেশায় লাগাম দিতে হবে। এগুলো যকৃত এবং ফুসফুস শেষ করে দেবে। এদের ক্ষতির বয়ান বলে শেষ করা যাবে না। স্মৃতিশক্তির ওপরও বিরূপ প্রভাব ফেলে। 

দৈহিক স্বাস্থ্য এবং ওজন নিয়ন্ত্রণ 
নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার অভ্যাসটা করে ফেলুন। নিয়মিত বলতে ঘন ঘন যেতে হবে না। বিশেষজ্ঞের পরামর্শে বেশ কয়েক মাস পর পর নির্দিষ্ট কিছু পরীক্ষা করিয়ে নেবেন। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা বড় বিষয়। স্বাস্থ্যকর ওজন কেবল হৃদযন্ত্রের যত্নই নেবে না, বেশ কিছু রোগকে সব সময় দূরে রাখবে। 

সোশাল মিডিয়ায় অতিব্যস্ততা নয়
সোশাল মিডিয়া জীবনের জরুরি অংশ হয়ে উঠেছে। কিন্তু অতিমাত্রা যে ক্ষতিকর তা নতুন করে বুঝিয়ে বলার দরকার পড়ে না। তাই যতটুকু প্রয়োজন ততটুকুতেই থাকুন। নতুন বছরে মানসিক সুস্থতায় এমন সিদ্ধান্ত জরুরি।

আরো পড়ুন: মানুষের একাকিত্ব ঘোচাতে ব্রিটেনে নতুন মন্ত্রণালয় চালু!

সবখানে ভারসাম্য 
ব্যক্তিগত ও পেশাজীবনে ভারসাম্য আনতে হবে। সবখানেই ভারসাম্য আনার চেষ্টা করবেন। এটা এক দারুণ স্বাস্থ্যকর অভ্যাস। কতটুকু খাচ্ছেন, কতটুকু ঘুমাচ্ছেন, কতটুকু জাগছেন ইত্যাদি বিষয়ে ভারসাম্য আনুন।   
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস 


মন্তব্য