kalerkantho


সুস্বাস্থ্যের জন্যে নয়া ট্রেন্ড 'গ্রিন কফি'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৬:৪৯



সুস্বাস্থ্যের জন্যে নয়া ট্রেন্ড 'গ্রিন কফি'

এক কাপ চা কিংবা কফি ছাড়া অনেকের সকাল শুরু হয় না। আমাদের অধিকাংশই এসপ্রেসো, ব্ল্যাক কিংবা ভালো মানের অন্য কোনো কফি খেয়ে অভ্যস্ত। সবাই তো গ্রিন টি চেনেন। কিন্তু আমরা এখনও গ্রিন কফির সঙ্গে পরিচিত নই। সম্প্রতি পৃথিবীতে জনপ্র্রিয় হয়ে উঠছে এটা। এখানে জেনে নিন গ্রিন কফির গুণের কথা। 

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট 
একেবারে কাঁচামাল এবং অপ্রক্রিয়াজাত থাকা অবস্থায় গ্রিন কফিতে থাকে শতভাগ ক্লোরোজেনিক এসিড। অর্থাৎ, এতে আছে ভরপুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি দেহের দূষিত উপাদান বের করে দেয়। গ্রিন কফিতে উচ্চমাত্রায় পটাশিয়াম এবং নিম্নমাত্রায় সোডিয়াম রয়েছে। ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। 

গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ 
গ্রিন কফি দেহে ইনফ্লামেশন প্রতিরোধ করে। ফলে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে। কাজেই যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে তারা গ্রিন কফি থেকে ব্যাপক উপকার পেতে পারে। 

প্রাকৃতিকভাবে বিষ তাড়ানো 
আমাদের লিভার পরিষ্কার করে এই কফি। দেহের বিষাক্ত উপাদান পরিষ্কার করতে ওস্তাদ এক পানীয়। সঙ্গে অপ্রয়োজনীয় চর্বিও হটিয়ে দেয়। বিপাকক্রিয়া সুষ্ঠু করে। কাজেই ওজন কমাতেও দারুণ উপকারী এই কফি। 

এলডিএল এর মাত্রা কমায় 
লো-ডেনসিটি লিপোপ্রোটিন বা এলডিএল কোলেস্টেরল আসলে ক্ষতিকর। এটা বাজে কোলেস্টেরল নামে পরিচিত। হৃদরোগের অন্যতম হোতা। নিয়মিত গ্রিন কফি খেলে এলডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে আসে। 

ত্বকের দেখভাল 
এতে আছে রাহিডিক এসিড, লিনোলিক এসডি এবং ওলেইক এসিড। ত্বকে ময়েশ্চরাইজার ধরে রাখা এবং তার যত্ন নিতে এর প্রয়োজন অনেক। তাই গ্রিন টি আপনার ত্বককে শুষ্ক হতে দেবে না। 
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস 



মন্তব্য