kalerkantho


বর্ষবরণের এই দিনে সুস্থ ও নিরাপদ থাকতে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ এপ্রিল, ২০১৮ ১১:০৫



বর্ষবরণের এই দিনে সুস্থ ও নিরাপদ থাকতে...

১৪২৫ সনের বাংলা নববর্ষের মঙ্গল শোভাযাত্রা শুরু হয়েছে 'মানুষ ভজলে সোনার মানুষ হবি' স্লোগান নিয়ে। আজ শনিবার সকাল ৯টায় শোভাযাত্রাটি শুরু হয়। তার আগে রাজধানীর রমনা উদ্যানের অশ্বত্থমূলে পহেলা বৈশাখকে বরণ করে নেওয়া হয়। ভোর ৬টা ১০ মিনিটে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের 'অরুণকান্তি কে গো যোগী ভিখারি' গানে শিল্পী মর্তুজা কবির মুরাদ তার বাঁশিতে তোলেন আহীর ভৈরব রাগ। আজ সারাদিনই চলবে পহেলা বৈশাখ বরণের উৎসব। হাজারো মানুষের ভীড় এবং গরম আবহাওয়ায় নিজের এবং পরিবার-স্বজনের নিরাপত্তার বিষয়টিও তো দেখতে হবে। এখানে স্বাস্থ্যকর এবং আরামের সঙ্গে উৎসব পালনের জন্যে কিছু পরামর্শ দেওয়া হলো। 

পানি এবং পানীয় 
আশা করা যায় সবাই বাড়ি থেকে বোতলে করে পানি নিয়ে বেরিয়েছেন। অনেকেই পরে বেরোবেন। তারা অবশ্যই পানি নিতে ভুলবেন না। পানির সঙ্গে পানীয়র দিকেও খেয়াল রাখবেন। অনেকেই শীতল হতে ঠাণ্ডা বেভারেজ বেছে নেন। কিন্তু বেভারেজ এড়িয়ে চলাই ভালো। এক বোতল স্যালাইন নিয়ে বের হওয়াটাও বুদ্ধিমানের কাজ হবে। ডাবের পানি হলে সবচেয়ে ভালো। এ ছাড়া রাস্তা-ঘাটে পেলে অবশ্যই ডাব খাবেন। মনে রাখবেন, এ ধরনের ভীড়-বাট্টায় অতিরিক্ত ঘামের কারণে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাই দেহে পানির অভাব পূরণ করতে হবে। 

রোদ থেকে বাঁচতে 
বিশেষ করে শিশুরা রোদে ঘুরতে ঘুরতে অসুস্থ হয়ে পড়ে। আপনাদের জন্যেও কম কষ্টের নয়। তাই অন্তত মুখটাকে ছায়ায় রাখতে ক্যাপ ব্যবহার করতে পারেন। বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের এদিকে-সেদিকে নানা ধরনের কাগজের ক্যাপ মেলে। এসব সংগ্রহ করে বা কিনে ব্যবহার করুন। কিছুই না পেলে পকেট থেকে রুমাল নিয়ে মাথায় দিয়ে রাখুন। 

বিশেষ সমস্যা 
অসংখ্য মানুষের গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা রয়েছে। মেলায় গিয়ে এটা-সেটা খাবার না খাওয়া অসম্ভব হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা শুরু হলে উদযাপনটাই মাটি হয়ে যাবে। তাই যাদের গ্যাস্ট্রিক আছে তারা কয়েকটি ওষুধ সঙ্গে নিয়ে বেরোন। এ ছাড়া মাথাব্যথা এবং অন্যান্য সাধারণ সমস্যার ক্ষেত্রে কয়েক ধরনের ওষুধ পকেটে নিয়ে নেওয়া উচিত। 

গামছা-রুমাল
ঘাম মুছতে সঙ্গে কিছু একটা নিন। আমাদের ঐতিহ্যবাহী গামছা গলায় ঝুলিয়ে নিতে পারেন। এতে ঘাম মোছার কাজও হবে, আবার ফ্যাশনও হয়ে যাবে। আর রুমাল তো আছেই। বার বার ঘাম মোছার জন্যে হাত ব্যবহার করা স্বাস্থ্যকর নয়। আপনার খাবারের সঙ্গে ঘাম মিশে যাবে হাত হয়ে। কাজেই সাবধান! 

জিরিয়ে নিন 
আজ তো ব্যাপক ঘোরাঘুরি করবেন। এটা ঠিক আছে। কিন্তু সামলে চলুন। ক্লান্ত মনে হলে কোথাও মিনিট পাঁচেক বসে থাকুন। তারপর আবার ঘোরাফেরা। একটানা ঘুরতে থাকবেন না। কোনো গাছের ছায়ায় বসে পড়ুন। যেখানে সেখানে জিনিয়ে নিতে ব্যাগে করে একটা চাদর বা কাগজ নিতে পারেন। 

নিরাপদে থাকুন  
ব্যাপক ভীড় এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। এ ধরনের ভীড়ে অনেকেই জিনিসপত্র এবং মোবাইল খোয়ান। কিছু পকেটমারের আনোগোনা থাকা বিচিত্র নয়। কাজেই নিরাপদ থাকুন। আর অন্য যেকোনো বিপদে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেওয়ার কথা ভুলবেন না। তা ছাড়া নিরাপত্তা রক্ষায় গোটা দেশে বিপুল পরিমাণ নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা নিয়োজিত রয়েছেন। তাদের কাছে সহায়তা চাইতে পারেন।



মন্তব্য