kalerkantho


গ্রীষ্মের খাবার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মে, ২০১৮ ০৯:২০



গ্রীষ্মের খাবার

ছবি অনলাইন

ডাবের পানি

গরমে আরামদায়ক পানীয় হতে পারে ডাবের পানি। এটি যেমন শরীরকে ঠাণ্ডা করে, তেমনই ক্যালরি ও শক্তি জোগায়। এই প্রাকৃতিক পানি পাকস্থলীর এসিড লেভেলকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে ও পাকস্থলীকে স্থিতাবস্থায় রাখতে সহায়তা করে।

দই

গরমে প্রতিদিনই খাওয়া যেতে পারে এই প্রোবায়োটিকটি। এটি হজমপ্রক্রিয়ায় সহায়তা করে। দইয়ে আছে প্রচুর পরিমাণে ভালো ব্যাকটেরিয়া, যা দেহের নানা সমস্যার সমাধানে সহায়তা করে। পাশাপাশি শরীরকে ভেতর থেকে ঠাণ্ডা রাখে।

ভেষজ

কিছু শীতলকরণ ভেষজ আছে যা পাকস্থলীকে ভেতর থেকে শীতল করে এবং সামগ্রিক শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়াকে আরামদায়ক রাখে। পুদিনা, মেনথল আর ক্যামোমিল—এমনই কিছুু ভেষজ যা পাকস্থলীর উত্তাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে।

পানিসমৃদ্ধ ফল-সবজি

তরমুজ, বাঙ্গি, স্ট্রবেরি আর পিচ ফল খুবই পানিসমৃদ্ধ ফল। এগুলো সারা দিন এনার্জেটিক ও কর্মক্ষম থাকতে সহায়তা করে। একই সঙ্গে দূর করে শরীরে গরমের কারণে সৃষ্ট পানির অভাব।

-- এনডিটিভি অবলম্বনে ইমরোজ বিন মশিউর


মন্তব্য