kalerkantho


মধ্যরাতে খেতে মানা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জুন, ২০১৮ ১০:০৭



মধ্যরাতে খেতে মানা

ছবি প্রতীকী

গ্রিন টি

অনেকেই ঘুমের আগে আরাম পেতে এক কাপ গ্রিন টি পান করে। এ চা স্বাস্থ্যকর হলেও রাতে খেলে কিছু সমস্যা দেখা দেয়। গ্রিন টিতে থাকা থিওব্রোমাইন, থিওফিলাইন ও ক্যাফেইন হৃৎস্পন্দন বৃদ্ধি করে। ফলে ঘুমের মেজাজ হারানোর শঙ্কা তৈরি হয়।

কাঁচা পেঁয়াজ

মধ্যরাতে কিছু খেলে তার সঙ্গে কাঁচা পেঁয়াজ এড়িয়ে চলা উচিত। এটি পেটে গ্যাস সৃষ্টি করে।

পিৎজা

দিনের বেলা এটি দিয়ে ক্ষুধা নিবারণ করতে পারেন। কিন্তু পিৎজা দিয়ে যদি মধ্যরাতের ক্ষুধা মেটাতে চান তাহলে বিপদ আছে। এতে থাকা চিজের ফ্যাট আর টমেটো সস এসিড রিফ্লাক্স ঘটায়।

শুকনো ফল

কিছু কারণে বিছানায় ওঠার আগে শুকনো ফল পেটব্যথার কারণ হতে পারে। এতে পানি থাকে কম, কিন্তু ফাইবার থাকে অনেক বেশি। ফলে গ্যাসের সমস্যা দেখা দেওয়া বিচিত্র নয়।

মসলাদার খাবার

মজা তো বটেই, বিপাকক্রিয়ার জন্যও উপকারী। তবে মসলাদার খাবার দুপুর কিংবা রাতের পাতে থাকলে ভালো। কিন্তু গভীর রাতের হলে মুশকিল। বিশ্রামের সময় যদি বিপাকক্রিয়ায় গতি আনেন, তাহলে রক্তপ্রবাহ বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে বাড়ে তাপমাত্রা। তখন ঘুম আসতে অনেক সময় লেগে যায়।

চর্বিযুক্ত খাবার

রাতে এ ধরনের খাবার এড়িয়ে চলা বুদ্ধিমানের কাজ। কারণ চর্বি না পুড়লে জমা পড়তে থাকে পেটে কিংবা কোমরে। ফলে মুটিয়ে যাবেন অনায়াসে। এসব খাবার খেলে ঘুমের সময় অস্বস্তিবোধ হবে। মনে হবে কোনো অস্থিরতায় ভুগছেন।

পানি

এক গ্লাস পানি খেয়ে বিছানায় যাওয়ার অভ্যাস অনেকেরই আছে। কিন্তু এটা ভালো অভ্যাস নয়। এই পানির কারণে আপনার গভীর ঘুম থেকে উঠে বাথরুমে যেতে হতে পারে। এতে গভীর ঘুম নষ্ট হতে পারে।

চকোলেট

এর স্বাস্থ্যগুণ অনেক। কিন্তু এতে থাকা ক্যাফেইন মধ্যরাতের জন্য মোটেই সুখকর নয়। তাই গভীর রাতে মজার এই খাবারের লোভ সামলাতে হবে।

-- চিট শিট অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার



মন্তব্য