kalerkantho


এখনো বেঁচে আছে ৮ কোটি বছর আগের এই বিচিত্র হাঙর!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ নভেম্বর, ২০১৭ ১৭:২০



এখনো বেঁচে আছে ৮ কোটি বছর আগের এই বিচিত্র হাঙর!

বিপুলা এই পৃথিবীর কতটুকু আমরা জানি! প্রকৃতির খেয়াল খুশি, তার কোলে লুকিয়ে থাকা অজানা ভাণ্ডার সম্পর্কে প্রতিদিন নিত্য নতুন তথ্য আবিষ্কার হচ্ছে। পৃথিবীকে ঘিরে রাখা তিন ভাগ পানির গভীরে যে কত অজানা প্রাণী রয়েছে তার সম্পূর্ণ হদিশ এখনও পাওয়া সম্ভব হয়নি।

পরিসংখ্যান বলছে পৃথিবীর সব সাগর এবং মহাসাগরের প্রায় ৯৫ শতাংশই এখনো রয়ে গিয়েছে লোকচক্ষুর আড়ালে, অজানা, অচেনা।

এই অজানা ভাণ্ডার থেকেই পর্তুগালের সমুদ্রে খোঁজ পাওয়া গিয়েছে একটি প্রাগৈতিহাসিক ডাইনোসর-যুগের হাঙরের। সাপের মতো মুখের এই হাঙরটিই বর্তমানে পৃথিবীর বুকে বেঁচে থাকা সবচেয়ে ভয়ংকর প্রাণী। এই প্রাণীর সমসাময়িক জীবের তালিকায় ছিল টাইরানোসোরাস রেক্স এবং ট্রাইসেরাটপস। এরা প্রত্যেকেই সময়ের সঙ্গে পৃথিবীর বুক থেকে সরে গেলেও আজও পর্যন্ত সমুদ্রের গভীরে বহাল তবিয়তে রয়েছে সর্পমুখি এই হাঙর। এমনটাই দাবি বিজ্ঞানীদের।

বিবিসি-র তথ্য অনুযায়ী ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের একদল গবেষক আটলান্তিক মহাসাগরের গভীরে গবেষণা কাজ করার সময়েই মুখোমুখি হন এই বিচিত্র প্রাণীর। তাঁদের পাতা ফাঁদে ধরা পড়ে এই হাঙরটি। অনুমান করা হচ্ছে ১৯ শতকের ‘সি সার্পেন্ট’-এর ধারণা এর থেকেই তৈরি হয়েছিল।

এই হাঙরের মাপ ৬ ফুট পর্যন্ত হতে পারে। সেই সঙ্গে রয়েছে ২৫টি পাটিতে মোট ৩০০টি করাতের মতো তীক্ষ দাঁত। আশ্চর্যের বিষয় হল ৮ কোটি বছর ধরে পৃথিবীর গভীরে বেঁচে থেকেও মানুষের সংস্পর্শে খুব একটা আসেনি এই হাঙরের প্রজাতি। এদের কথা প্রথম জানা যায় ১৯ শতকের নাবিকদের লেখা থেকে।

জীবিত জীবাশ্ম বা লিভিং ফসিলস-এর তত্ত্ব এর আগে অবতারণা করেন চার্লস ডারউইন। তিনি জানিয়েছিলেন, প্রাগৈতিহাসিক যুগের বহু প্রাণ এখনও একইরকম রয়েছে। কারণ তারা প্রকৃতিতে এমনভাবে মিলে রয়েছে যেখানে অভিযোজনের প্রয়োজন পড়ে না। তাই নিজেদের সত্ত্বাকে কোটি কোটি বছর ধরে এই প্রাণীরা এক রাখতে পেরেছে। এই হাঙরটিও সমুদ্রের বহু গভীরে বসবাস করায় সম্ভবত নিজের অস্তিত্বকে টিঁকিয়ে রাখতে পেরেছে। এমনটাই মনে করছেন গবেষকরা।


মন্তব্য