kalerkantho


এবার ভারতে মন্ত্রীর প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ নভেম্বর, ২০১৭ ১২:০৪



এবার ভারতে মন্ত্রীর প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগ!

ভারতের সরকার যখন সে দেশের মানুষকে টয়লেট ব্যবহারের জন্য উৎসাহিত করছে ঠিক সে সময় ক্ষমতাসীন বিজেপির একজন মন্ত্রী প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগ করলেন। এ কাজটি করেছেন মন্ত্রী রাম শিন্ধে।

মহারাষ্ট্র রাজ্যের একটি মাঠে তার প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগের ভিডিও বিশ্ব টয়লেট দিবসে ইন্টারনেটে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এ ঘটনা নিয়ে সরকারবিরোধীরা ব্যাপক সমালোচনার ঝড় তুলেছে। তারা বলেছেন, একজন মন্ত্রীর প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগের ঘটনা প্রমাণ করে যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পরিচ্ছন্নতা প্রচারাভিযান ব্যর্থ হয়েছে। কিন্তু সে মন্ত্রী বলছেন, তিনি অস্বস্তি বোধ করছিলেন এবং কোনো টয়লেট খুঁজে না পাওয়ায় প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন।

আরো পড়ুন..........

শিন্ধে মহারাষ্ট্র রাজ্যের পানি সংরক্ষণ বিষয়ক মন্ত্রী। তিনি গত একমাস ধরে ভারতের সেচ প্রকল্পগুলো পরিদর্শন করছিলেন। গত শনিবার মহারাষ্ট্র রাজ্যের দক্ষিণ-পশ্চিমে তিনি প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগ করেন। সমালোচনার জবাবে মন্ত্রী বলেন, প্রচণ্ড গরম এবং ধুলোবালিতে একটানা ভ্রমণ আমাকে অসুস্থ করে তোলে। আমি জ্বরেও ভুগছিলাম।

কিন্তু মহারাষ্ট্রের প্রধান বিরোধী দল ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি সরকারের সমালোচনা করে বলছে, মন্ত্রী রাস্তার পাশে কোনো টয়লেট খুঁজে পাননি কারণ সরকার এসব জায়গায় মানুষের জন্য টয়লেটের ব্যবস্থা করতে ব্যর্থ হয়েছে।

আরো পড়ুন..........

বিরোধী প্রশ্ন তুলে বলছে, প্রধানমন্ত্রী মানুষের কাছ থেকে কিভাবে শৃঙ্খলা আশা করেন যখন তাঁর মন্ত্রীরাই বিশৃঙ্খল? ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২০১৪ সাল থেকে ক্লিন ইন্ডিয়া বা পরিচ্ছন্ন ভারত প্রচারাভিযান শুরু করেন। ভারতজুড়ে লাখো টয়লেট বানানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মোদি। কিন্তু সমালোচকরা মনে করেন, সরকার তাঁর প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হয়েছে কারণ ভারতজুড়ে এ প্রচারাভিযান খুব একটা প্রভাব তৈরি করতে পারেনি। আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়াটার এইড বিশ্ব টয়লেট দিবসে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। সে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে এখনো ৭০ কোটির বেশি মানুষ প্রকাশ্যে অথবা অনিরাপদ টয়লেটে মলত্যাগ করে।

 


মন্তব্য