kalerkantho


ইরাকে আইএসের উত্থান-পতন, কিছু তথ্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১১:০৮



ইরাকে আইএসের উত্থান-পতন, কিছু তথ্য

ছবি অনলাইন

বিশ্বের অন্যতম ধনী ও নৃশংস জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) গঠিত হয় ইরাকে। সংগঠনটি ক্রমে ডালপালা বিস্তৃত করে বিশাল সাম্রাজ্য গঠন করে। এরপর টনক নড়ে বিশ্ববাসীর। আইএস প্রতিরোধে ইরাকের জনগণও যুদ্ধ শুরু করে। বিদেশি সাহায্যও আসে।


আরো পড়ুন : আইএস এর পর মধ্যপ্রাচ্যে কী আসছে?


আইএসবিরোধী জনমত গড়ে ওঠে। ক্রমে আইএসকে পরাজিত করা শুরু হয়। এভাবে কোণঠাসা করতে করতে এবার আইএসকে সম্পূর্ণভাবে পরাজিত করতে সক্ষম হয়েছে ইরাক।

আজ রবিবার ইরাক সরকারিভাবে আইএস পরাজিত করা উদযাপন করছে। ঘোষণা করা হয়েছে সাধারণ ছুটি। ইরাকের প্রধানমন্ত্রী এ জন্য রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে ভাষণও দিয়েছেন।


আরো পড়ুন : এই দুই ঘাঁটি থেকে উৎখাত হলে আইএস জঙ্গিদের হাতে আর কোনো ভুমি থাকবে না


তবে অনেকের মনে এখনও ভয়ংকর এ সন্ত্রাসী সংগঠনটি নিয়ে সন্দেহ রয়ে গেছে। ভূখণ্ড হারালেও হয়ত তারা সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে যাবে, এমনটাই আশঙ্কা তাদের।

আইএসের উত্থান-পতনের কিছু তথ্য জেনে নিন-

• জানুয়ারি ২০১৪ : আইএস সৈন্যদের ফালুজা ও রামাদি দখল
• জুন ২০১৪ : ছয় দিন যুদ্ধের পর মসুল দখল করে আইএস
• ২৯ জুন ২০১৪ : আবু বকর আল-বাগদাদিকে খলিফা করে নিজেদের নাম ইসলামিক স্টেট ঘোষণা করে আইএস


আরো পড়ুন : আইএস ‘রাজধানী’ রাক্কা শহর পুনর্দখল


• আগস্ট ২০১৪ : সিঞ্জর দখল। প্রায় ২ লাখ মানুষ সিঞ্জর পর্বতমালার দিকে আত্মগোপন করে। যুক্তরাষ্ট্রের বিমান আক্রমণ শুরু।
• মার্চ ২০১৫ : ইরাকি সৈন্য ও তাদের শিয়া মিত্রবাহিনীর তিকরিত পুনরুদ্ধার
• ডিসেম্বর ২০১৫ : রামাদি পুনরুদ্ধার
• জুন ২০১৬ : ফালুজা পুনরুদ্ধার
• অক্টোবর ২০১৬ : ইরাকি সৈন্য, শিয়া মিলিশিয়া, কুর্দিশ সেনা ও আন্তর্জাতিক মিত্রবাহিনীর মসুল অবরোধ
• জুলাই ২০১৭ : মসুল পুনরুদ্ধার
• ডিসেম্বর ২০১৭ : আইএস-এর বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষ হওয়ার ঘোষণা ইরাকি প্রধানমন্ত্রীর।
সূত্র : বিবিসি


মন্তব্য