kalerkantho


জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সব কচ্ছপ নারী হয়ে যাচ্ছে!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৮:২৯



জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সব কচ্ছপ নারী হয়ে যাচ্ছে!

অস্ট্রেলিয়ার বৃহৎ প্রবাল প্রাচীর, গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ-এর বাসিন্দা বিশ্বের সবচেয়ে বড় কচ্ছপ প্রজাতির সব কচ্ছপ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে প্রায় পুরোপুরি নারী হয়ে যাচ্ছে। এমনকি ওই প্রবাল প্রাচীরটিও বেশিদিন টিকবে না বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সম্প্রতি এক গবেষণায় এই তথ্য উঠে আসে।

সমদ্রতটের বালুর তাপমাত্রা কচ্ছপদের ডিমের ভেতরে থাকা বাচ্চাদের লিঙ্গ নির্ধারণে প্রধান ভুমিকা পালন করে। তাপমাত্রা বেশি হলে বেশি বেশি নারী কচ্ছপের জন্ম হয়। গত দুই দশকে অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের দ্বীপসমুহে তাপমাত্রা এতটাই বেড়েছে যে, এখন আর এই সমুদ্রতীরগুলোতে কোনো পুরুষ কচ্ছপ জন্ম নিচ্ছে না। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ওশেনিক অ্যান্ড অ্যাটমোসফেরিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এনওএএ) ফিশারিজ এর গবেষকরা এমনটাই জানিয়েছেন।

কারেন্ট বায়োলজিতে নামক জার্নালে প্রকাশিত ওই গবেষণায়, সমুদ্রের কচ্ছপ প্রজাতির ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের আসন্ন হুমকি নিয়ে নতুন করে উদ্বেগ তুলে ধরল। 

বিজ্ঞানীরা গত কয়েকদশক ধরেই জানতেন যে, বিশ্ব তাপমাত্রা বাড়ার ফলে সমুদ্রের কচ্ছপদের লিঙ্গ পরিবর্তন ঘটে যায়। তথাপি এবারই প্রথম তারা বিষয়টি সরাসরি নথিভুক্ত করলেন।

গবেষণায় গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের ডিম নিষিক্ত করনের ভিন্ন ভিন্ন দুটি আবাসস্থলে ভিন্ন ভিন্ন লিঙ্গ অনুপাত দেখা গেছে। ডিম নিষিক্ত করনের দক্ষিণাঞ্চলীয় সমুদ্রতীরের সবুজ কচ্ছপদের ৬৫ থেকে ৬৯ শতাংশই নারী।

আর উত্তরাঞ্চলীয় সমুদ্রতীরের তাপমাত্রা আরো বেশি হওয়ায় সেখানকার কচ্ছপদের ৮৬.৮ শতাংশ থেকে ৯৯.৮ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক কচ্ছপ নারী। আর কিশোর কচ্ছপতেদর ৯৯.১ শতাংশ নারী।

এনওএএ ফিশারিজ এর গবেষক জীববিজ্ঞানী মাইকেল জেনসেন বলেন, এই গবেষণার ফলে গত কয়েকদশক ধরে কচ্ছপদের মধ্যে জনসংখ্যাত যে পরিবর্তন হয়েছে তার একটি চিত্র উদঘাটনের পাশপাশি বিশ্বের অন্যান্য সমুদ্রের কচ্ছপরা কতদিন বাঁচতে পারে সে বিষয়েও একটি ধারণা করতে পারব আমরা।

সবুজ কচ্ছপদেরকে ইতিমধ্যেই বিপন্ন প্রজাতি আইনের আওতায় রক্ষা করার চেষ্টা চলছে। আর ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর দ্য কনজারভেশন অফ ন্যাচার এর লাল তালিকায় বিপন্ন প্রজাতি হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। গ্রেট ব্যারিয়ার রিফে বিশ্বের সবচেয়ে বড় কয়েকটি কচ্ছপ প্রজাতির বাস আছে।

সূত্র: ডেক্কান ক্রনিকলস

 


মন্তব্য