kalerkantho


দিল্লির ন্যাক্কারজনক ঘটনায় তসলিমার ‘জটিল মন্তব্য’!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২০:৪৪



দিল্লির ন্যাক্কারজনক ঘটনায় তসলিমার ‘জটিল মন্তব্য’!

ঘটনা খুবই ন্যাক্কারজনক। এবারের ঘটনাস্থলও ভারতের সেই শহরে যেই শহর যৌন নৃশংসতা আর অপরাধের জন্য হাল আমলে বহুল সমালোচিত- হ্যাঁ দিল্লি। 

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও আপলোড করেন সম্প্রতি। এতে দেখা যায় প্রকাশ্য দিবালোকে বাসের সিটে বসে এক পুরুষ যাত্রী স্বমেহন করছেন। 

ভিডিও ধারণকারী ছাত্রীর দাবি তিনি ওই বাসের যে সিটে বসেছিলেন তার পাশের সিটে বসেই লোকটি জঘন্য কর্মটি করে। এসময় লোকটি তার শরীরও ছুঁয়েছিল বলে অভিযোগ করেন তিনি।

আচমকা ওই ঘটনায় বিহ্বল হয়ে পড়া মেয়েটি বলেন, আমি প্রথমে বুঝতে পারিনি যে আসলে এমন ঘটনা কীভাবে ঘটছে। পরে আমি মোবাইল ফোনে তার ওই অপকর্মের একটি ভিডিও বানাই। একপর্যায়ে বাসের সেফটি অ্যালার্ম বাজাই। কিন্তু কেউ আমার সাহায্যে এগিয়ে আসেনি।   

আরো পড়ুন  শাবানাকে এ কী বললেন তসলিমা নাসরিন!

এরপর তিনি সামনের বসন্ত বিহার থানায় নেমে গিয়ে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন। কিন্তু সংশ্লিষ্ট পুলিশ দল তাকে ৬ ঘণ্টা বসিয়ে রাখে অভিযোগ লিপিবদ্ধ করার আগে। পরে দিল্লি নারী কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিবালের হস্তক্ষেপে পুলিশ অভিযোগ নেয়। 

কিন্তু অভিযোগকারীর জন্য এবং সমাজের সচেতন রুচিশীল মহলের জন্য নিদারুন কষ্টের আর মর্মযাতনার বিষয় হচ্ছে- তিনি যখন ওই ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেন তখন অনেক লোকই এ ঘটনাকে যৌন নির্যাতন বলে স্বীকার করতে চায়নি। এতে ঘটনার শিকার বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী খুবই হতাশ হয়ে পড়েন। 

যাহোক, এই ঘটনা নিয়ে যখন পক্ষে বিপক্ষে কি-বোর্ড আর বাকযুদ্ধে চরম অবস্থা সামজিক মাধ্যমে, তখন বাংলাদেশি ভিন্নমতাবলম্বী লেখক তসলিমা নাসরিন তার স্বভাবসুলব কায়দায় বিতর্কিত মন্তব্য করে নিজেকে ফের জাহির করেছেন এর মাঝখানে। 

টুইটারে মনিসা গুলাটি নামে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর আপলোড করা সেই জঘন্য ভিডিওর স্ক্রিনশট

বিষয়টির দিকে ইঙ্গিত করে তসলিমা মত প্রকাশ করেন, পুরুষেরা হত্যা-ধর্ষণ না করে এমন কাণ্ড করলেও ভাল। 

সম্প্রতি করা টুইটে তসলিমা লিখেন, দিল্লিতে এক ভীড়ভর্তি বাসে এক লোক হস্তমৈথুন করেছে, চলমান ধর্ষণ-সংস্কৃতির যুগে এটা বড় অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হতে পারে না। 

আরো পড়ুন  তসলিমা নাসরিন ভারতে আবারও বিক্ষোভের মুখে 

তসলিমা স্লেষাত্মক ভাষায় বলেন, পুরুষদের উচিৎ ধর্ষণ ও হত্যায় না জড়িয়ে বরং মাস্টারবেট করা। প্রকাশ্যে হস্তমৈথুন কি অপরাধ? কমসে কম এটা তো একটা ভিক্টিমলেস অপরাধ।

তবে হাল আমলে ভারতের বাসিন্দা তসলিমার এমন টুইট ভারতীয়দের রীতিমতো লাজওয়াব করে দিয়েছে; বিশেষ করে তসলিমা যখন বলেছেন এটা একটা অপরাধ হতে পারে তবে তেমন বড় অপরাধ না এবং এই অপরাধে কেউ পীড়িত হয়নি। 

তবে যে তরুণী ওই ঘটনার মুখে পড়েছেন এবং  তা ভিডিও করে সামাজিক মাধ্যমে দিয়েছেন, থানায় অভিযোগ করেছেন- ঘটনা তসলিমার মতো আর কাউকে না করলেও তাকে মানসিকভাবে অবশ্যই পীড়িত করেছে, এটা পরিষ্কার- এমন মন্তব্যও করছেন অনেকে। টুইটার, জনসত্তা.কম



মন্তব্য