kalerkantho


হাতের ভেতর গজিয়ে উঠছে কান!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ মে, ২০১৮ ১২:৫১



হাতের ভেতর গজিয়ে উঠছে কান!

ছবি অনলাইন

প্রায় দুই বছর আগে দুর্ঘটনায় শামিকা বারেজ (১৯)  নামে মার্কিন এক সৈনিক কান হারান। পরে চিকিৎসকরা তার সেই কানকে পুনরায় তৈরি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু বিষয়টি মোটেই সহজ ছিল না।

চিকিৎসকরা তার পাঁজর থেকে তরুণাস্থি দিয়ে কান তৈরি করে প্রতিস্থাপনের সিদ্ধান্ত নেন। আর এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে তৈরি করা কানটি রাখা হয়েছে হাতের ত্বকের নিচে। দেখলে যা মনে হয় হাতের ভেতরেই যেন গজিয়ে উঠছে কান ।

বারেজ দুর্ঘটনার সময় যুক্তরাষ্ট্রের মিসিসিপি থেকে টেক্সাস ফিরছিলেন। গাড়ি চালানোর সময় সামনের চাকা পাংচার হয়ে যায়। এ সময় গাড়ি থেকে ছিটকে পড়ে যান। তার মাথায় এবং মেরুদণ্ডে আঘাত লাগে এবং বাম কানটি পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়।

প্রথমে কৃত্রিম কান ব্যবহারের চিন্তা করলেও পরে শামিকার কান তৈরিতে পরিকল্পনা করেন টেক্সাসের উইলিয়াম বোমন্ট আর্মি মেডিকেল সেন্টারের প্লাস্টিক সার্জারির পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ওয়েন জনসন। শামিকার পাঁজর থেকে তরুণাস্থি নিয়ে তা থেকে নতুন একটি কান তৈরি করেন তিনি। এরপর তার হাতের ত্বকের নিচে এই কানটি রাখা হয় যাতে এর নিজস্ব কিছু রক্তনালী তৈরি হয়।  

কান তৈরির এমন ঘটনা বিজ্ঞানের জগতে নতুন কিছু নয়। ১৯৯০ সালে গবেষকরা একটি ইঁদুরের পিঠে মানুষের কানের মতো একটি অঙ্গ গজাতে সক্ষম হন। চীনের ডাক্তাররাও পাঁচজন শিশুর জন্য নতুন কান তৈরি করেন অনেকটা এ ধরনের পদ্ধতিতে।

দুর্ঘটনায় শামিকা বারেজের শ্রবণশক্তির কোনো ক্ষতি হয়নি। কিছুদিনের মধ্যেই তিনি নতুন এই কানে অনুভূতি ফিরে পাবেন বলে আশা করা হচ্ছে।
সূত্র : সায়েন্স অ্যালার্ট


মন্তব্য