kalerkantho


অভিনেতা পিযূষ মরে টনক নড়েছিল, আবার অবস্থা বেগতিক!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুন, ২০১৮ ২৩:২৬



অভিনেতা পিযূষ মরে টনক নড়েছিল, আবার অবস্থা বেগতিক!

ভারতের দক্ষিণ বাকসাড়ার বাসিন্দা পিয়ালী বেরা শনিবার তার দুই মেয়ে সোমদত্তা ও সোমাদৃতাকে স্কুটারে করে নিয়ে প্রাইভেট পড়ানোর জন্য যাচ্ছিলেন। বেতড় মোড়ে বাঁক ঘোরার সময়ে একটি ট্রেলার তাদের ধাক্কা মারে।

আহত অবস্থায় তিন জনকে দক্ষিণ হাওড়ার এক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই গভীর রাতে মারা যায় সোমদত্তা। সামনের বছর তার মাধ্যমিক দেওয়ার কথা ছিল।

তার মৃত্যুর খবর পেয়ে প্রতিবেশীরা ভিড় করেন তাদের বাড়িতে। তারাই জানান, সোমদত্তা এবং সোমাদৃতা  দুই বোনই পড়াশোনায় অত্যন্ত ভালো। দু’জনেই বাস্কেটবল খেলোয়াড়। হাওড়া জেলার হয়ে প্রতিনিধিত্বও করেছেন। খেলার পাশাপাশি, সোমদত্তার শখ ছিল ছবি আঁকাও। পিয়ালীকে এখনো জানানো হয়নি বড় মেয়ের মৃত্যুসংবাদ।

চিকিৎসকরা বলছেন, রবিবার তার পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে। ছোট মেয়ে সোমাদৃতার অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল।

এদিকে, এই দুর্ঘটনার পরে ফের প্রশ্নের মুখে কোনা এক্সপ্রেসওয়ের যানবাহনের নিয়ন্ত্রণ। সাতরাগাছি সেতুর ওপরে এক্সপ্রেসওয়ের যানজট নিয়ে হাওড়ার প্রশাসনিক বৈঠকে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তার পরেও সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দফায় দফায় যানজটে নাজেহাল হচ্ছেন মানুষ। কয়েকশে ক্যামেরা বসিয়ে, রোড ডিভাইডার করে বা তিন লেনের রাস্তা করেও লাভ হয়নি। ভোর থেকে ট্রাক-ট্রেলারের ভিড়ে অবরুদ্ধ হয়ে থাকছে এই রাস্তা। হিমশিম খেয়ে যাচ্ছে ট্র্যাফিক পুলিশও।

বছরখানেক আগে এই সাতরাগাছি সেতুতেই দুর্ঘটনায় মারা গেছেন অভিনেতা পীযূষ গঙ্গোপাধ্যায়। তার পরেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে সেতুতে যানজট কমাতে ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে কয়েক কোটি টাকা ব্যয় করা হয়। কিছু দিনের জন্য যানজট কমলেও আবারো ফিরে এসেছে সেই পুরনো ছবি।


মন্তব্য