kalerkantho


নিজের কাটা পা রান্না করে বন্ধুদের খাওয়ালেন তিনি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ জুন, ২০১৮ ২০:২০



নিজের কাটা পা রান্না করে বন্ধুদের খাওয়ালেন তিনি!

প্রতীকী ছবি।

ব্রিটিশ উপনিবেশ বিস্তৃতির সময় আফ্রিকা-প্রবাসী এক ভদ্রলোক একটা বই লেখেন; যার নাম ‘হাউ টু কুক অ্যা ক্রোকোডাইল’। তাতে সিংহের স্টেক, জেব্রার ফ্রাই, হিপ্পোক হ্যাম ইত্যাদির রেসিপি ছিল। কিন্তু নরমাংস?

না, সাহেবরা এই একটা ব্যাপারে বেজায় ব্যাজার বলেই জানা যায়। কোনো গোষ্ঠীকে হেয় প্রতিপন্ন করতে হলে দীর্ঘকাল ধরে ইউরোপ তাকে ‘নরমাংসভোজী’ আখ্যা দিয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি এমন এক খবর উঠে এসেছে যে, এবার থেকে কোনো আদিম জনগোষ্ঠীকে ‘নরমাংসভোজী’ বলার আগে অন্তত কয়েকবার ভাবতে হবে।

সোশ্যাল মিডিয়া রেডিট-এ ‘ইনক্রেডিবলিশাইনিশার্ট’ নামের এক ইউজার জানান, তিনি তার বন্ধুদের নিজের কাটা পা দিয়ে এক বিশেষ পদ রান্না করে খাইয়েছেন। তিনি নিজেও পরিতৃপ্তি সহকারেই এই পায়ের মাংস খেয়েছেন, সেটাও তিনি অকপটে লিখেছেন।

তার লেখা থেকেই জানা যায়, এক দুর্ঘটনায় তার পায়ে আঘাত লাগে। সেখানে পচন ধরায় সেই পা কেটে বাদ দিতে হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ওই বাসিন্দা তার কাটা যাওয়া পা নিজের কাছে রাখতে চাইলে তাকে অনুমতি দেওয়া হয়। কারণ সে দেশে এমন দাবি আইনসিদ্ধ।

এই ঘটনার তিন সপ্তাহ পরে তিনি এক ডিনার পার্টির প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন। সেখানে তিনি এই কাটা পায়ের একটি পদ রান্না করবেন বলে জানান। এর আগে তিনি ও তার বন্ধুরা নরমাংস খাওয়া স্বাস্থ্যকর কি না, তা নিয়ে বিস্তর আড্ডা মেরেছেন বলে জানা যায়। এবার সুযোগ মেলায় তিনি ১১ জন বন্ধুকে আমন্ত্রণ জানান। ১০ জন বন্ধু এই বিচিত্র খাবার খেতে রাজি হন।  

সারা রাত কাটা পা’টি ম্যারিনেট করা হয়। তার পরে নুন, মরিচ, পেঁয়াজ, লেবুর রস দিয়ে রান্না শুরু করা হয়। কাটা পা দিয়ে তিনি মেক্সিকান পদ ট্যাকো রান্না করেন। এবং তা টমেটো সস সহযোগে বন্ধুদের পরিবেশন করেন। বন্ধুরা রীতিমতো তৃপ্তি সহকারেই সেই ট্যাকো খান।

পায়ের যে অংশটি রান্নায় লাগেনি। সেই অংশটির শাস্ত্রসম্মত অন্ত্যেষ্টি সম্পন্ন করেন ‘ইনক্রেডিবলিশাইনিশার্ট’। তেমনটাই তিনি লিখেছেন তার পোস্টে।



মন্তব্য