kalerkantho


আলোর মুখ দেখছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি    

১১ অক্টোবর, ২০১৭ ২১:৪৩



আলোর মুখ দেখছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে অবশেষে আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন। গতকাল মঙ্গলবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মীজানুর রহমানের উপস্থিতিতে তার কার্যালয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন'র সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন মো. নজরুল ইসলাম বাবু এমপি। আজ বুধবার নবগঠিত সংগঠনটির সদস্য সচিব সুমন কুমার মজুমদার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সবার সম্মতিক্রমে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে থাকবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মিজানুর রহমান এবং চলতি দায়িত্বে আহ্বায়ক হিসেবে নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ আলী মিয়া এবং এস এম খুরশিদ উল আলমকে নিযুক্ত করা হয়েছে। সদস্য সচিব হিসেবে কাজ করবেন ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক সুমন কুমার মজুমদার। এ ছাড়া কর্যনির্বাহী সদস্য হিসেবে থাকবেন অ্যাডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু, মো. নূর এলাহি মিনা, নিউটন হাওলাদার, মো. সিরাজুল হক, এফ এম শরিফুল ইসলাম, এস এম সিরাজুল ইসলাম, মো. শফিকুল ইসলাম, বিদ্যুৎ কুমার বালা, মো. সালাউদ্দিন ও মো. আব্দুর রাজ্জাক।

সভায় আরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের শিক্ষার্থীদের একটি কমন প্লাটফর্মে আনার জন্য এবং পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান আয়োজনের লক্ষ্যে আগামী ২০ জানুয়ারি  বিজ্ঞান অনুষদের মাঠে জাঁকজমকপূর্ণভাবে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যারা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বা তৎকালীন জগন্নাথ কলেজ থেকে ন্যূনতম একটি সনদ গ্রহণ করেছেন তারাই এখন থেকে এ সংগঠনের সদস্য হওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত ডিআইজি (ঢাকা রেঞ্জ) মোহাম্মদ আলী মিয়া, প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল অফিসার এস এম খুরশিদ উল আলম, জবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাধারণ  সম্পাদক এফ এম শরিফুল ইসলাম ও এস এম সিরাজুল ইসলাম, ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক সুমন কুমার মজুমদার, ভুগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নিউটন হাওলাদার, ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক সুদীপ্ত বসাক, ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক শফিকুল ইসলাম, আইন বিভাগের প্রভাষক আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।


মন্তব্য