kalerkantho


ফাঁস দিয়ে জাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ০২:০৯



ফাঁস দিয়ে জাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যলয়ের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। ওই শিক্ষার্থীর নাম মো. আদনান।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের ৪১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। মীর মোশারফ হোসেন হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মো. আদনান বি ব্লকের ৪৫০ নম্বর কক্ষে থাকতেন। তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

মীর মোশাররফ হলের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, রাত ১০টার দিকে এক শিক্ষার্থী বি ব্লকের ৪৫০ নম্বর কক্ষে আদনানকে ডাকতে গিয়ে দেখেন ভেতর থেকে দরজা বন্ধ। ডাকাডাকি করে কোনো সাড়া না পেয়ে জানালা তিনি জানালা দিয়ে দেখেন সিলিং ফ্যানের সঙ্গে নাইলনের দড়িতে ঝুলে আছেন আদনান। ওই শিক্ষার্থীর চিৎকারে আশপাশের কক্ষের ছাত্ররা এসে দরজা ভাঙার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। শেষ পর্যন্ত জানালার কাঁচ ভেঙে হাত ঢুকিয়ে দরজার ছিটকিনি খুলতে সক্ষম হন।

রাত ১০ টার দিকে আদনানকে উদ্ধার করে প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তারের পরামর্শে তাকে দ্রুত সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক আদনানকে মৃত ঘোষণা করেন।

এরপর লাশ ক্যাম্পাসে নিয়ে আসা হয়েছে।

রাত ১ টা ৩০ মিনিটে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত আদনানকে বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে এবং তার পরিবারের জন্য অপেক্ষা করছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. তপন কুমার সাহা বলেন, ‘হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। ঠিক কি কারণে ঘাটনা ঘটেছে তা এই মুহুর্তে নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

আদনানের মৃত্যুতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন। তিনি আরো বলেন, এই অপ্রত্যাশিত ঘটনায় আমরা মর্মাহত। ওর পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে। আমরা তাদের জন্য অপেক্ষা করছি।

এদিকে ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে ক্যাম্পাসে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।


মন্তব্য