kalerkantho


বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বিশ্ব স্বীকৃতি পাওয়ায় মঙ্গলবার সংসদে আলোচনা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ নভেম্বর, ২০১৭ ২১:৪৪



বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বিশ্ব স্বীকৃতি পাওয়ায় মঙ্গলবার সংসদে আলোচনা

জাতিসংঘের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইউনেস্কো কর্তৃক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে 'মেমরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড' বা 'বিশ্বের স্মৃতি' হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ায় তা নিয়ে সংসদ সাধারণ আলোচনা হবে। কাল মঙ্গলবার সংসদ অধিবেশনের কার্যসূচিতে বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

সংসদ সচিবালয় সূত্র জানায়, সরকারি দল আওয়ামী লীগের সিনিয়র সংসদ সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ জাতীয় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ১৪৭ ধারায় এ সংক্রান্ত একটি নোটিশ জমা দেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ওই নোটিশটি গ্রহণ করে এ বিষয়ে সাধারণ আলোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এর আগে গত রবিবার সংসদ অধিবেশন শুরুর দিনে সংসদের কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

তোফায়েল আহমেদ উত্থাপিত নোটিশে বলা হয়েছে, 'সংসদের অভিমত এই যে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ইউনেস্কো কর্তৃক বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় দেশ ও জাতির সঙ্গে আমরা গর্বিত এবং এজন্য ইউনেস্কোসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে জাতীয় সংসদ ধন্যবাদ জানাচ্ছে। '

উল্লেখ্য, গত ৩০ অক্টোবর প্যারিসে ইউনেস্কোর সদর দপ্তরে সংস্থাটির মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা এক বিজ্ঞপ্তিতে, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) দেওয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্বালাময়ী ওই ভাষণটিকে 'ডকুমেন্টারি হেরিটেজ' (প্রামাণ্য ঐতিহ্য) হিসেবে ঘোষণা করেন। যা বাঙ্গালী জাতিকে নতুন মর্যাদার আসনে আসীন করেছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে বলেন, ৭ মার্চ হলো জাতির মূল চালিকা শক্তি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ভাষণে গেরিলা যুদ্ধের দিক নির্দেশনাসহ অর্থনৈতিক মুক্তির আহ্বান জানিয়েছিলেন- সেই ভাষণ আজ বিশ্ব স্বীকৃত। সম্প্রতি রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ মানবতার নবদ্বার উম্মোচন করেছে- যা বিশ্বব্যাপী সমাদৃত।


মন্তব্য