kalerkantho


সংসদে কৃষিমন্ত্রী

উৎপাদিত ফসলের সঠিক মূল্য নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয় সচেষ্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ নভেম্বর, ২০১৭ ২৩:৩২



উৎপাদিত ফসলের সঠিক মূল্য নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয় সচেষ্ট

কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী সংসদে জানিয়েছেন, কৃষক যাতে উৎপাদিত ফসলের সঠিক মূল্য পায় সে বিষয়ে কৃষি মন্ত্রণালয় সচেষ্ট। কৃষি মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে কিছু কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

আজ সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এ তথ্য জানান।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী আরো জানান, কৃষি মন্ত্রণালয় দেশের কৃষি উত্পাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত। কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করা সরাসরি কৃষি মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমের আওতাভূক্ত নয়। তবে দেশের কৃষকরা যাতে তাদের উত্পাদিত ফসল, শাকসবজি বিক্রম করে অধিক লাভবান হতে পারে সে লক্ষ্যে ২য় শস্য বহুমুখীকরণ প্রকল্প (এসসিডিপি)'র আওতায় কৃষি পণ্য সংগ্রহ ও বিক্রয় কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। কৃষকরা তাদের উত্পাদিত কৃষিপণ্য সেখানে বিক্রয় করে লাভবান হচ্ছেন।

এ ছাড়া সমন্বিত খামার ব্যবস্থাপনা কম্পোনেন্ট প্রকল্পের আওতায় বাজার সংযোগ সংক্রান্ত কৃষক মাঠ স্কুলের মাধ্যমে বাজার সংযোগের বিষয়ে কৃষকদের অবহিত করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো জানান, কৃষকদের উত্পাদিত মৌসুমী ফসল একই সময়ে বাজারজাত হওয়ায় বাজার মূল্য কিছুটা কম পায়। এ জন্য কৃষকদের ফসল সংগ্রহের পর কিছু সময় সংরক্ষণের জন্য তাদের প্রশিক্ষণ ও উদ্বৃদ্ধ করা হচ্ছে। জৈব সার, গুটি ইউরিয়া ব্যবহার, সেচে কম পানি ব্যবহার, পার্চিং, আলোর ফাঁদ, সেক্স ফেরোমেন ব্যবহারসহ রাসায়নিক সার ও কীটনাশকের খরচ কমিয়ে উত্পাদন ব্যয় নিম্ন পর্যায়ে রাখার জন্য কৃষকদেরকে পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

সংসদ সদস্য মামুনুর রশীদ কিরণের প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণের পর কৃষি উত্পাদনে অসামান্য সফলতা অর্জিত হয়েছে। দানাদার খাদ্যশস্যসহ সকল  ফসলের উত্পাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। দানাদার খাদ্যশস্যে (চাল, গম, ভূট্টা) বাংলাদেশ প্রায় স্বনির্ভর। দেশের চাহিদা অনুযায়ী সকল ফসলের উত্পাদন বৃদ্ধির জন্য সরকারের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

আওয়ামী লীগের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মুহাম্মদ গোলাম মোস্তফা বিশ্বাসের প্রশ্নের জবাবে মতিয়া চৌধুরী জানান, বিনা সুদে কৃষি ঋণ বিতরণের বিষয়টি অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সঙ্গে সম্পর্কিত। কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সংস্থা সাধারণত বিনামূল্যে বীজ বিতরণ করে না। তবে সরকার কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় দেশের সকল জেলার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদেরকে কিছু কিছু ফসলের বীজ বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়ে থাকে।

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, সরকার দেশের কৃষকদের কল্যাণকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে। খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের লড়্গ্যে কৃষিবান্ধব নীতি গ্রহণ ও সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ফলে দানাদার খাদ্যশস্যসহ সকল প্রকার ফসল উত্পাদনে অসামান্য সফলতা অর্জিত হয়েছে।


মন্তব্য