kalerkantho


পাচার বন্ধে ইলিশ রপ্তানি হবে : প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৩:৩৯



পাচার বন্ধে ইলিশ রপ্তানি হবে : প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

শুধুমাত্র ইলিশ পাচার ঠেকাতে বৈধ পথে ইলিশ রপ্তানির সুযোগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ। মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর সোমবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী থেকে পদোন্নতি পেয়ে একই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, চোরাই পথে ইলিশ পাচার হওয়ায় রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। এমনকি বিভিন্ন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেও যখন তা ঠেকাতে পারছে না তখন বাধ্য হয়েই সরকার বৈধ পথে ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


আরো পড়ুন : রপ্তানি বন্ধ তবু দেশে দেশে মিলছে বাংলাদেশের ইলিশ!


নারায়ণ চন্দ্র বলেন, দেশীয় ইলিশ চোরাই পথে যখন বর্ডার পার হয়ে অন্য রাষ্ট্রে যায় তখন বড় বড় ইলিশই যায়। কত বেশি পরিমাণে ইলিশ এভাবে চলে যায় তা আজও ঠিক করে বলা যাচ্ছে না। আমরা রপ্তানির দিকে যেতে চাচ্ছি এই কারণেও যে আমাদের ইলিশ উৎপাদন বেড়েছে, আন্তর্জাতিক বাজারেও চাহিদা রয়েছে। সে জন্য আমরা কিছুটা রপ্তানি করতে চাই। অবৈধপথে পাচারের পথ সংকুচিত করতেই বৈধপথে ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিয়েছি।


আরো পড়ুন : আপাতত ইলিশ রপ্তানি নয় : মন্ত্রী


২০১২ সালের ১ আগস্ট থেকে ইলিশসহ সব মাছ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। পরে ওই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর ইলিশ ছাড়া অন্য সব মাছ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়। গরুর মাংসের দাম প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে মাংসের দাম কম। কাজেই অতীতের পর্যায়ে দাম নিয়ে যাওয়া আমাদের জন্য কঠিন হবে। বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজার পরিস্থিতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে দামের ব্যাপারটা মেনে নিতে হয়। তারপরও আপনারা (সাংবাদিকদের) যতটুকু অতিরিক্ত মনে করছেন সেটুকু এক থেকে দুই বছরের মধ্যে দেশীয় উৎপাদনের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণে আনতে পারব, গরুর মাংসের দাম নিয়ে এমনই আশ্বাস দেন নারায়ণ চন্দ্র চন্দ।

 


মন্তব্য