kalerkantho


শূন্য অভিবাসন ব্যয়ে সৌদিতে নারী কর্মী পাঠানো হয় : নুরুল ইসলাম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৮:৫৬



শূন্য অভিবাসন ব্যয়ে সৌদিতে নারী কর্মী পাঠানো হয় : নুরুল ইসলাম

সৌদি আরবে শূন্য অভিবাসন ব্যয়ে নারী কর্মী পাঠানোর পাশাপাশি পুরুষ কর্মীদের ক্ষেত্রে ব্যয় হয় সর্বোচ্চ ১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। আজ সোমবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরীর এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

তিনি বলেন, ‘সরকার সম্প্রতি ১৬টি দেশের অভিবাসন ব্যয় পুনঃনির্ধারণ করেছে। দেশ ও পেশাভেদে বিভিন্ন দেশে গমনকারী কর্মীর অভিবাসন ব্যয় ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে সৌদি আরবে শূন্য অভিবাসন ব্যয়ে মহিলা কর্মী পাঠানোর পাশাপাশি পুরুষ কর্মীদের জন্য সর্বোচ্চ ১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা এবং সিঙ্গাপুরে সর্বোচ্চ ২ লাখ ৬২ হাজার ২৭০ টাকা অভিবাসন ব্যয়ে রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে কর্মী পাঠানো হয়ে থাকে।’

প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী জানান, সরকারের পুনঃনির্ধারিত অভিবাসন ব্যয় অনুযায়ী মালয়েশিয়া যেতে ১ লাখ ৬০ হাজার, লিবিয়া ১ লাখ ৪৫ হাজার ৭৮০, বাহরাইন ৯৭ হাজার ৭৮০ টাকা, সংযুক্ত আরব আমিরাত ১ লাখ ৭ হাজার ৭৮০, কুয়েত ১ লাখ ৬ হাজার ৭৮০ টাকা, ওমান ১ লাখ ৭৮০ টাকা, ইরাক ১ লাখ ২৯ হাজার ৫৪০ টাকা, কাতার ১ লাখ ৭৮০ টাকা, জর্ডান ১ লাখ ২ হাজার ৭৮০ টাকা, মিশর ১ লাখ ২০ হাজার ৭৮০ টাকা, রাশিয়া ১ লাখ ৬৬ হাজার ৬৪০ টাকা, মালদ্বীপ ১ লাখ ১৫ হাজার ৭৮০ টাকা, ব্রুনাই দারুস সালাম ১ লাখ ২০ হাজার ৭৮০ টাকা এবং লেবানন যেতে ১ লাখ ১৭ হাজার ৭৮০ টাকা অভিবাসন ব্যয় হয়।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের ১৬৫টি দেশে কর্মী পাঠায়। ২০১৭ সালে ১০ লাখ ৮ হাজার ৫২৫ কর্মী বিদেশে গেছে। এটি রেকর্ড সৃষ্টি করেছে।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০১৭ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ৫১ লাখ ৯৮ হাজার ৯১৪ জন কর্মী বিদেশ গেছেন।


মন্তব্য