kalerkantho


জলঢাকায় স্কুল শিক্ষক হত্যা

পরিকল্পনাকারী জেএমবি সদস্য তৈয়ব গ্রেপ্তার

নীলফামারী প্রতিনিধি   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায় শিক্ষক মাধব চন্দ্র রায় হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী জেএমবির সক্রিয় সদস্য তৈয়ব আলীকে (৬৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জেলা শহরের আনন্দবাবুর পুল এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল বুধবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। তিনি উপজেলার গোলমুণ্ডা ইউনিয়নের তিলাই গ্রামের মৃত আছানতুল্লাহর ছেলে।

উপজেলার গোলমুণ্ডা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাধব চন্দ্র রায় ২০১৫ সালের ৯ আগস্ট সকাল ১০টার দিকে স্কুলে যাওয়ার পথে তাঁকে গুলি করে জেএমবির সদস্যরা। গুরুতর অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর ১৪ আগস্ট রাতে তিনি মারা যান। তাঁর ছোট ভাই রতন চন্দ্র রায় এ ঘটনায় ১২ আগস্ট রাতে অজ্ঞাতপরিচয় ছয়জনকে আসামি করে থানায় হত্যাচেষ্টার একটি মামলা করেন।

পুলিশ জানায়, প্রাথমিক তদন্ত শেষে মামলাটি ২০১৬ সালের ২৪ এপ্রিল সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়। এ মামলায় উপজেলার গোলমুণ্ডা ইউনিয়নের তিলাই গ্রামের বজলুর রহমান ও ঘাটেরপাড় এলাকার তরিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তারের পর তারা ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

নীলফামারী সদর থানার ওসি বাবুল আকতার বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তৈয়ব আলীকে শহরের আনন্দবাবুর পুল এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেন জেলা কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সদস্যরা। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি নিজেকে জেএমবির সদস্য বলে স্বীকার করেছেন। স্কুল শিক্ষক মাধব চন্দ্র রায় হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী তিনি। জেএমবির বিভিন্ন মিটিং তাঁর বাড়িতে হয় এবং তিনি সংগঠনের চাঁদা সংগ্রহকারী। শিক্ষক মাধব হত্যার আগে ও পরে তাঁর বাড়িতেই এসংক্রান্ত একাধিক মিটিং হয়েছে বলে তিনি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।’

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মাহাবুব আলম বলেন, ‘এর আগে ওই মামলায় জেএমবি সদস্য বজলুর রহমান ও তরিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তৈয়ব আলীকে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়েছে।’

পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খান জানান, এর আগে গ্রেপ্তার হওয়া তরিকুল ও বজলুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তৈয়ব আলীর বাড়িতে মাধব চন্দ্র রায়কে হত্যার পরিকল্পনার কথা বলেন। গ্রেপ্তার তৈয়ব আলী রংপুরে জাপানি নাগরিক হোসি কোনিও হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত মাসুদের শ্বশুর।


মন্তব্য