kalerkantho


বেফাকের কাউন্সিল

আল্লামা শফী ফের সভাপতি, মাওলানা কুদ্দুস মহাসচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) সভাপতি হিসেবে আবারও নির্বাচিত হয়েছেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী। মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস। সিনিয়র সহসভাপতি হয়েছেন আল্লামা আশরাফ আলী।

গতকাল সোমবার রাজধানীর ফরিদাবাদ মাদরাসায় বেফাকের মজলিসে উমুমি বা কাউন্সিল অধিবেশনে ১১৬ সদস্যবিশিষ্ট নতুন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়।

অধিবেশনে লিখিত বক্তব্যে আল্লামা শফী বলেন, ‘দুনিয়ার পরিস্থিতি অত্যন্ত নাজুক। এমতাবস্থায় উলামায়ে কেরামকে সর্বদা ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা পালন করতে হবে। আহলে সুন্নত ওয়াল জামাতের আকিদার ওপর অটল থাকা অপরিহার্য। আমাদের আকিদা-বিশ্বাসে ফাটল সৃষ্টি করার জন্য নানা রকম ষড়যন্ত্র চলছে। এ ব্যাপারে সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে।’ 

অধিবেশনে রোহিঙ্গা মুসলমানদের যাবতীয় অধিকার, স্বাধীনতা ও নিরাপত্তা বিধান নিশ্চিত, জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণা, ইসলামবিরোধী এনজিওদের সব অপতৎপরতা বন্ধ করাসহ পাঁচ দফা প্রস্তাব গৃহীত হয়।

বেফাকের সভাপতি শাহ আল্লামা আহমদ শফীর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক এবং মুফতি ফয়জুল্লাহর পরিচালনায় অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহসভাপতি আল্লামা আশরাফ আলী, সহসভাপতি মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী, মুফতি ওয়াক্কাস, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা আব্দুল হামীদ, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর, মাওলানা সাজেদুর রহমান, মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু, মহাসচিব মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, সহকারী মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, মাওলানা নুরুল আমীন, মাওলানা মুনিরুজ্জামান, মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ সাদী, মহাপরিচালক মাওলানা জুবায়ের আহমদ চৌধুরী প্রমুখ।


মন্তব্য