kalerkantho


আজ বিশ্ব বন দিবস

সুন্দরবনের নদী-খাল ভরাট হচ্ছে, সংকটে বাঘ

গৌরাঙ্গ নন্দী, খুলনা   

২১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



রয়েল বেঙ্গল টাইগারের বাস সুন্দরবনে। বনের বাঘ কমছে, দুনিয়াজুড়েই বাঘের সংখ্যা কমতির দিকে। সুন্দরবনে বাঘের প্রকৃত সংখ্যা জানতে আবারও জরিপ হচ্ছে। বনে বাঘের খাবার কমছে। খাবারের খোঁজে লোকালয়ে ঢুকে পড়ছে বাঘ, মারাও পড়ছে মানুষে হাতে। চোরা শিকারিদের কবলে পড়েও বাঘ মারা পড়ছে।

এই প্রেক্ষাপটে আজ ২১ মার্চ বন দিবস পালিত হচ্ছে। এবারের বন দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে—বন ও স্থায়ীত্বশীল (টেকসই) উন্নয়নের সংকট। এবারের স্লোগান হচ্ছে— ‘শহরগুলো সবুজ, স্বাস্থ্যকর ও আরো বাসযোগ্য গড়ে তুলি’।

সুন্দরবন নিয়ে কাজ করা ‘ক্লিন’ নামের একটি বেসরকারি সংগঠনের নির্বাহী প্রধান হাসান মেহেদী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সুন্দরবনের নদী-খালগুলোয় পলি জমে ভরাট হওয়ায় প্রাণিকূলের বিচরণ কমছে, সংখ্যাও কমে যাচ্ছে। এ কারণে সুন্দরবনের বাঘও খাবারের সংকটে ভুগছে। এর প্রধান খাবার হরিণ। সেই হরিণের বিচরণ সর্বত্র এক রকম নয়। আবার বাঘ একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলজুড়ে ঘোরাফেরা করে। বাঘের নিজস্ব এলাকায় খাবার সংকট হলে সে অন্য এলাকা ও পাশের জনপদে চলে আসে। আর মানুষ প্রধানত ভয় পেয়ে তাদের মেরে ফেলে।

সুন্দরবনে বাঘের বিপন্নতা সম্পর্কে হাসান মেহেদী আরো বলেন, চোরা শিকারিরাও বাঘ মেরে ফেলছে। মাঝেমধ্যেই বাঘের চামড়া ও অন্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ উদ্ধারের ঘটনা ঘটে। সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তি আছে। সরকারিভাবে দাবি করা হচ্ছে, সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশে বাঘ আছে ১০৬টি। আর ভারতীয় অংশে বাঘের সংখ্যা মাত্র ৭৬টি। সব মিলিয়ে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ১৮২টি। তবে ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ের মাধ্যমে গণনার ওই পদ্ধতি নিয়ে নানা কথাবার্তা ওঠায় আবারও গণনা হচ্ছে।

দুনিয়ার নানা জায়গায় বাঘের বাস। গত শতকেই এই প্রাণীটির ৯৭ শতাংশ মারা পড়েছে। এই তথ্যের ভিত্তিতে বাঘ রক্ষায় ২০১০ সালে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বলা হয়, দুনিয়াজুড়ে মাত্র তিন হাজার বাঘ রয়েছে। সেখান থেকেই বিপন্নপ্রায় এই প্রাণীটিকে রক্ষার জন্য দুনিয়াজুড়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বাঘ দিবস ঘোষিত ও পালিত হয়ে আসছে।

খুলনার বিভাগীয় বন সংরক্ষক আমীর হোসাইন চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, সুন্দরবনের খাল সার্ভে ও ক্যামেরা ট্র্যাপিং মাধ্যমে তৃতীয়বারের মতো বাঘশুমারি হচ্ছে। সর্বশেষ শুমারিতে বাঘের সংখ্যা কমে যাওয়ায় এই সংখ্যা বৃদ্ধির লক্ষ্যেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এবারে বাঘের সংখ্যা গণনার পাশাপাশি বনে বাঘের খাদ্যচক্রও পর্যবেক্ষণ করা হবে বলে তিনি জানান।

সুন্দরবনের ৪৭৮ বর্গকিলোমিটার এলাকায় নতুন করে বাঘ জরিপ শুরু হযেছে। মোট ২৩৯টি পয়েন্টে বসানো হচ্ছে পাঁচ শতাধিক ক্যামেরা। এ ছাড়া সুন্দরবনের চারটি রেঞ্জে চিহ্নিত ৪১৮টি খালে সার্ভে করা হবে।

 


মন্তব্য