kalerkantho


বাজেটে রাজশাহীর উন্নয়নে অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



আগামী জাতীয় বাজেটে রাজশাহীর উন্নয়নে অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দের দাবিতে নগরীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সামাজিক সংগঠন রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদ গতকাল রবিবার সকালে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে। নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত এ কর্মসূচিতে রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা অংশ নেন।

রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি আলহাজ মো. লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ী ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা অংশ নেন।

বক্তারা বলেন, গত ২২ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহী সফর করেছেন। সেখানেও রাজশাহীর উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছিল। বক্তারা বলেন, জাতীয় বাজেটে অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দ দিয়ে চলতি অর্থবছরেই রাজশাহী-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস চালু, আব্দুলপুর-রাজশাহী-রহনপুর ডুয়েল গেজ রেললাইন নির্মাণ, সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাসেবার মানোন্নয়ন, ভূখণ্ড রক্ষায় স্থ্থায়ী নদীতীর প্রতিরক্ষা প্রকল্প গ্রহণ, কৃষিভিত্তিক ইপিজেড প্রতিষ্ঠা, টেক্সটাইল মিলসহ সব বন্ধ কলকারখানা চালুর পাশাপাশি পূর্ণাঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, নগরীর একাধিক মাধ্যমিক স্কুল সরকারীকরণ, ক্রিকেট টেস্ট ভেন্যু স্থাপন, পাঁচতারা হোটেল নির্মাণ, পদ্মা নদীর চরে সরকারিভাবে অর্থনৈতিক জোন স্থাপন, পদ্মা নদীর রাজশাহী-চাঁপাই ও চারঘাট-বাঘা ড্রেজিং প্রকল্প গ্রহণ করে নদীপথে পণ্য সরবরাহ ব্যবস্থা চালুকরণ, আম, টমেটোসহ অন্যান্য ফল সংরক্ষণে কোল্ডস্টোরেজ স্থাপন এবং নারী শিল্পোদ্যোক্তাদের বিশেষ ঋণের ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। এ ছাড়া রাজশাহীর হজরত শাহমখদুম বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার দাবি জানান বক্তারা। বক্তারা রাজশাহীতে একাধিক সিএনজি স্টেশন স্থাপন, বসতবাড়ি ও শিল্পে বন্ধ গ্যাসের সংযোগ পুনরায় চালুরও দাবি জানান।

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. জামাত খান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান অসাদ, মহনগরের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবু, জাতীয় পার্টির নেতা সালাউদ্দিন মিন্টু, জাসদের নেতা শাহরিয়ার রহমান, বাসদের নগর সমন্বয়ক আফজাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।



মন্তব্য