kalerkantho


নতুন লঞ্চ চালু করা নিয়ে উত্তেজনা

রাঙামাটিতে ছয় ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ

রাঙামাটি প্রতিনিধি   

১৫ জুন, ২০১৮ ০০:০০



রাঙামাটি-বাঘাইছড়ি নৌ রুটে একটি নতুন লঞ্চে যাত্রী তোলা নিয়ে বাগিবতণ্ডা ও হাতাহাতির জেরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাঙামাটিতে ছয় ঘণ্টা নৌ ও সড়ক উভয় পথে যান চলাচল বন্ধ ছিল। ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে হঠাৎ করে এতটা সময় যান চলাচল বন্ধ থাকায় জেলাবাসী ভীষণ ভোগান্তিতে পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ঘটনাসংশ্লিষ্ট লোকজন জানায়, গতকাল সকালে ‘তানিয়া’ নামের একটি নতুন যাত্রীবাহী লঞ্চে রাঙামাটির রিজার্ভ বাজার ঘাট থেকে যাত্রী উঠানো নিয়ে ওই লঞ্চের কর্মচারীদের সঙ্গে অন্যান্য লঞ্চের কর্মচারীদের কথা-কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এ ঘটনার জেরে কিছুক্ষণের মধ্যে জেলার বাস, ট্যাক্সি, লঞ্চসহ সব যান চলাচল বন্ধ করে দেয় রাঙামাটির পরিবহন মালিক শ্রমিকরা। জেলা প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে ছয় ঘণ্টা পর দুপুর ১টায় শুরু হয় যান চলাচল।

ঈদের ছুটির আগে গতকালের শেষ কর্মদিবসের সকালে এমন আকস্মিক বিড়ম্বনায় হকচকিয়ে যায় শহরবাসী। ফলে সাতসকালে বিপাকে পড়ে উপজেলার উদ্দেশে রওনা করতে ঘাটে আসা অসংখ্য মানুষ। বিপাকে পড়ে ঈদের ছুটিতে বাড়ির পথে রওনা হওয়া হাজারো মানুষ।

লঞ্চ, বাস মালিক সমিতির সভাপতি মঈন উদ্দিন সেলিম বলেন, ‘হঠাৎ করে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন মৌখিকভাবে একটি নতুন লঞ্চ চলার অনুমতি দেয়। আমরা বারবার জেলা প্রশাসককে বলেছি, ঈদের আগে নতুন লঞ্চ অনুমতি না দেওয়ার জন্য। কিন্তু তিনি হঠাৎ করে অনুমতি দেওয়ায় সকালে লঞ্চঘাটে যাত্রী তোলা নিয়ে অন্য লঞ্চের শ্রমিকদের সঙ্গে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। আমাদের শ্রমিকদের মারধর করা হয়। এর প্রতিবাদে আমার ধর্মঘট করতে বাধ্য হয়েছি।’

রাঙামাটির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এস এম শফি কামাল বলেন, ‘আমরা লঞ্চ, বাস ও সিএনজি মালিক সমিতির নেতাদের সঙ্গে কথা বলছি।’



মন্তব্য