kalerkantho


২২,৮৫৮ জন দিতে পারবে ইভিএম ভোট

বরিশাল অফিস   

১২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি) নির্বাচনে চারটি ওয়ার্ডের ১০টি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিকস ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেওয়া হবে। এই ১০ কেন্দ্রে ২২ হাজার ৮৫৮ জন ভোটার ইভিএমে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবে। যদিও সিটি নির্বাচনে ভোটার দুই লাখ ৪২ হাজার ১৬৬ জন। শতকরা হিসাবে ৯ দশমিক ৪৪ শতাংশ ভোটার কালি আর কাগজহীন ভোটের সুবিধা পাচ্ছে। আচারণবিধি পর্যবেক্ষণের জন্য ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।  

ইভিএমে ভোট নেওয়া হবে এমন কেন্দ্রগুলো হলো ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কিশোর মজলিস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নুরিয়া আইডিয়াল স্কুল, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের অক্সফোর্ড মিশন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও শ্রী চৈতন্য গোবিন্দ মোহন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ২০ নম্বর ওয়ার্ডের আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বিএম কলেজের কলা বিভাগ কেন্দ্র ও বিএম কলেজের বাণিজ্য বিভাগ কেন্দ্র এবং ২১ নম্বর ওয়ার্ডের সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ, সৈয়দ আব্দুল মান্নান ডিডিএফ মাদরাসা নিচতলা এবং একই মাদরাসার দোতলার কেন্দ্র।

এদিকে নির্বাচনী আচরণবিধি তদারকি করতে ১০ সদস্যের ভিজিল্যান্স টিম গঠন করা হয়েছে। এতে রিটার্নিং অফিসার মো. মজিবুর রহমান আহ্বায়ক এবং সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. হেলাল উদ্দিন খান সদস্যসচিব হয়েছেন। অন্য আট সদস্যের মধ্যে রয়েছেন প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি।

গত মঙ্গলবার ভিজিল্যান্স টিমের প্রথম সভায় তাঁদের কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। আগামী ৩০ জুলাই নির্বাচন কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত বরিশাল জেলা প্রশাসনের ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিটার্নিং অফিসারের অধীনে থাকবেন। তাঁরা প্রার্থীদের আচরণবিধি লঙ্ঘনসহ আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ে রিটার্নিং অফিসারকে আইনি সহায়তা দেবেন।

একইভাবে গঠন করা হয়েছে প্রার্থীদের কার্যক্রম মনিটরিং কমিটি। ওই কমিটিরও প্রধান হলেন রিটার্নিং অফিসার মো. মজিবুর রহমান। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী মেয়র, সাধারণ ও বর্তমান কাউন্সিলর প্রত্যেকের একজন করে প্রতিনিধি রাখা হয়েছে মনিটরিং কমিটিতে। বরিশাল আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. মজিবুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।



মন্তব্য