kalerkantho


অন্যকে হয়রান করতে গিয়ে সৌদি যুবরাজের-ই এখন কাছা খুলে যাওয়ার অবস্থা!

তামীম রায়হান   

৭ নভেম্বর, ২০১৭ ১৩:৩৫



অন্যকে হয়রান করতে গিয়ে সৌদি যুবরাজের-ই এখন কাছা খুলে যাওয়ার অবস্থা!

আরব কার্টুনিস্টের দৃষ্টিতে ক্ষমতাবান সৌদি যুবরাজ ও কারাবন্দি অন্যান্য রাজপুত্ররা

গত ১৫৫ দিন ধরে চলা কাতারের বিরুদ্ধে আরোপিত অন্যায় অবরোধে সৌদি আরব কাতারের শাসনব্যবস্থা নড়বড়ে করে দেওয়ার কোনো চেষ্টা বাদ রাখেনি। সেই সৌদির রাজপরিবারেই এখন শুরু হয়েছে তুমুল বিভেদ ও পারস্পরিক দ্বন্দ্বের কালো অধ্যায়।

 

কাতারের টিভি চ্যানেল আলজাজিরার বিরুদ্ধে সৌদি-জোটের চক্রান্তও থেমে থাকেনি এই কয়েক মাসে। আলজাজিরা সগৌরবে ক'দিন আগে ২১ বছর পূর্তি পালন করল, অন্যদিকে সৌদি আরবের টিভি চ্যানেলে 'এমবিসি'তে এখন চলছে চরম হযবরল অবস্থা।

সিবিএস চ্যানেলের সাংবাদিকের সঙ্গে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলথানি

 
কাতারের বিরুদ্ধে লড়তে গিয়ে এভাবে সৌদি নেতৃত্ব এখন নিজেরাই মাথা ঠোকাঠুকি শুরু করেছে। এ পরিস্থিতি কোনদিকে গড়ায়, সেটি এখনই বলা মুশকিল। কিন্তু উপসাগরীয় অঞ্চলে চলমান এই অস্থিরতার পুরোপুরি দায় সৌদি আরবকেই নিতে হবে।  

উদার ও মানবিক নেতৃত্বের গুণে আয়তনে ছোট দেশ অনেক বড় সাফল্যের অধিকারী হতে পারে- কাতার যেমন এর সবচেয়ে উজ্জ্বল প্রমাণ, তেমনিভাবে পারস্পরিক কলহ আর লোভ একটি বড় আয়তনের দেশকেও নড়বড়ে করে দিতে পারে- সৌদি আরব এখন এর সবচেয়ে উৎকৃষ্ট 'নমুনা'। একটা বিষয় বেশ পরিষ্কার এখন: কাতারের বিরুদ্ধে লাগতে গিয়ে সৌদি রাজপরিবারের কর্তাদের বিশেষ করে প্রবল ক্ষমতাবান যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের এখন নিজেদেরই কাছা খুলে যাওয়ার অবস্থা! সামনে আর কি কি আছে কে জানে... 

লেখক : গণমাধ্যম গবেষক, মানবাধিকার বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, কাতার


মন্তব্য