kalerkantho


ফিটনেস

পোষা প্রাণীকে সঙ্গী করে ব্যায়াম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ আগস্ট, ২০১৭ ১০:৩৮



পোষা প্রাণীকে সঙ্গী করে ব্যায়াম

সুস্বাস্থ্যের জন্য ব্যায়ামের বিকল্প নেই। শরীর ঠিক রাখার জন্য কেউ ঘরে ব্যায়ামটা সেরে নেন। কেউ বা দৌড়ান জিমনেসিয়ামে। কারো বা ব্যায়ামের জন্য পছন্দ খোলা মাঠ।

জিমনেসিয়ামে ব্যায়ামে বেশির ভাগ সময়ই সঙ্গীর অভাব হয় না। একসঙ্গে অনেকে থাকায় ব্যায়াম তখন উপভোগ্য হয়ে ওঠে। কখনো কখনো অনুশীলনে সঙ্গীর অভাব প্রকট হয়ে উঠতে পারে। আর তখন একা একা ব্যায়াম করা ছাড়া উপায় থাকে না। এতে ব্যায়ামে অনেক সময় একঘেয়েমি চলে আসে। এর ফলে একসময় ব্যায়ামের প্রতি অনীহা আসাটাও অসম্ভব কিছু নয়। এসব ক্ষেত্রে একটা পোষা প্রাণী আবার ব্যায়ামে দারুণ এক সঙ্গী হয়ে উঠতে পারে।

এতে একা অনুশীলনের একঘেয়েমি থেকে যেমন রেহাই পাওয়া যাবে, তেমনি ব্যায়াম আনন্দদায়কও হয়ে উঠতে পারে। তা ছাড়া পোষা প্রাণীর সঙ্গে ব্যায়ামে একদিকে যেমন আপনার উপকার হচ্ছে তেমনি উপকৃত হচ্ছে প্রাণীটিও। এতে আপনার প্রিয় প্রাণীটি যেমন একঘেয়ে জীবন থেকে রেহাই পাবে, তেমনি বাড়বে তার প্রাণচাঞ্চল্য। শুধু তা-ই নয়, প্রিয় প্রাণীটির সঙ্গে আরো বেশি বেশি সময় কাটানোর সুযোগ তৈরি হবে। এবার দেখা যাক পোষা প্রাণীকে নিয়ে কী কী ব্যায়াম করা যায়।

হাঁটা
সর্বোত্তম শারীরিক অনুশীলনটি হচ্ছে হাঁটা। এটি ব্যায়ামের সবচেয়ে সাধারণ উপায়ও। পরিশ্রমের পর সারা দিনের ক্লান্তি দূর করতে হাঁটাহাঁটির সময় একটা পোষা প্রাণী সঙ্গী হলে দারুণ হবে। এটা যেমন আপনার জন্য উপকারী তেমনি তার নিজের জন্যও। ব্যায়ামের এই সাধারণ উপায়টির অনুশীলন হার্টকে শক্তিশালী করতে যেমন কার্যকর, তেমনি রক্তচাপ কমানো ও শারীরিকভাবে শক্তিশালী হতে সহায়তা করবে। নিয়মিত এই ব্যায়ামের ফলে পোষা প্রাণীটিকে যেমন কর্মক্ষম রাখবে তেমনি বাড়াবে তার প্রাণচাঞ্চল্য। তবে মনে রাখতে হবে শুরুতে তাড়াহুড়া করা যাবে না, একদিকে যেমন হালকা গতিতে শুরু করতে হবে, তেমনি দূরত্বের বিষয়টিও মাথায় রাখতে হবে। শুরুতে হাঁটার দূরত্বটা মোটেও বেশি করা যাবে না। এতে প্রাণীটির মধ্যে আপনার সঙ্গী হওয়ার ইচ্ছাটা কমে যেতে পারে। (চলবে)


মন্তব্য