kalerkantho


অপহরণের পর ভিডিও ধারণ হত্যার হুমকি

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০



রাজবাড়ীতে কলেজছাত্রীকে অপহরণের পর শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ ও ইন্টারনেটে ছাড়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ১১ জুন ছাত্রীটির বাবা রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন। আদালতের নির্দেশে গতকাল শুক্রবার রাজবাড়ী থানায় মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে।

আসামিরা হলো রাজবাড়ী পৌর এলাকার লক্ষ্মীকোল গ্রামের মৃত হারুন মোল্লার ছেলে মেহেদী হাসান হাবিব ও মৃত দারোগ আলীর ছেলে ওহাব মোল্লা।

মামলার বাদী জানান, তাঁর মেয়ে এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। মেয়েটিকে হাবিবের সঙ্গে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন হাবিবের বাবা। তিনি প্রস্তাব নাকচ করেন। এতে হাবিব ক্ষিপ্ত হয়। গত ২১ মার্চ সকালে মেয়েটি কলেজে যেতে বাড়ি থেকে বের হয়ে জেলা শহরের পাবলিক হেলথ মসজিদ এলাকায় পৌঁছায়। হাবিব মেয়েটিকে জোর করে একটি অটোরিকশায় তুলে নিয়ে যায়। পরে সদরের বেড়াডাঙ্গা গ্রামের একটি বাড়িতে মেয়েটিকে আটকে রেখে শ্লীলতাহানি করে হাবিব। এর ভিডিও করে ওহাব মোল্লা। তারা একটি কাবিননামায় মেয়েটির স্বাক্ষরও করিয়ে নেয়। মেয়েটি কৌশলে মুক্ত হয়ে বাড়ি ফেরে। ১ মে মেয়েটি হাবিবকে তালাক দেয়। হাবিব তালাকের নোটিশ পেয়ে মেয়েটি ও তার বাবাকে জীবননাশের হুমকি এবং ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেন। মামলার বাদী ঘটনা মীমাংসার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।



মন্তব্য