kalerkantho


রোহিঙ্গা নিধন : মিয়ানমারের ব্যাখ্যা চেয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জুন, ২০১৮ ১০:৫৮



রোহিঙ্গা নিধন : মিয়ানমারের ব্যাখ্যা চেয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত

ছবি অনলাইন

হেগের আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) এক আবেদনের প্রেক্ষিতে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীদের ওপর পরিচালিত নানা নির্যাতন-নিপীড়ন বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে।

আইসিসি বিচারকরা বৃহস্পতিবার এক আদেশে বলেছেন, এ বিষয়ে আগামী ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে মিয়ানমারের বক্তব্য তারা জানতে চান। এ বিষয়ে মিয়ানমারের জবাব জানতে চেয়ে সময়ও বেঁধে দিয়েছে আদালত।

আদালতের কৌঁসুলি ফাতোও বেনসুদা গত এপ্রিলে একটি আবেদনটি করেন। তার প্রেক্ষিতেই মিয়ানমারের কাছে বক্তব্য জানতে চাওয়া হয়েছে এবার।

আদালতের আদেশে বলা হয়, মিয়ানমারের ভূখণ্ড থেকে রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করার মত অপরাধের যে অভিযোগ এসেছে এবং বিষয়টি বিচারের জন্য যে আবেদন একজন প্রসিকিউটর করেছেন, সে বিষয়ে মিয়ানমারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের বক্তব্য জানা প্রয়োজন বলে চেম্বার (আইসিসি) মনে করছে।  

মিয়ানমার আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের সদস্য না হওয়ায় সেখানে সংঘটিত অপরাধের বিচার করার সরাসরি কোনো এখতিয়ার এ আদালতের নেই।  কিন্তু রোহিঙ্গারা যেহেতু মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছে। এ কারণে বিষয়টি আন্তঃসীমান্ত অপরাধের পর্যায়ে পড়ে। এছাড়া বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের সদস্য হওয়ায় আইসিসি বিষয়টি বিচারের এখতিয়ার রাখে বলে ফাতোও বেনসুদার আশা করছেন।

তিনি এ বিষয়ে আইসিসির আদেশ চেয়ে আবেদন করার পর হেগের আদালত বাংলাদেশ সরকারের মতামত জানতে চেয়ে গত মে মাসে চিঠি দেয় । চলতি মাসের শুরুতে বাংলাদেশ সরকার ওই চিঠির জবাব দিলেও সেখানে মিয়ানমারের বিচারের পক্ষে মত দেওয়া হয়েছে কি না- সে বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানায়নি সরকার।

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা নির্বিচারে হত্যা, ধর্ষণ ও অন্যান্য অপরাধের শিকার হয়েছে। তবে মিয়ানমার বরাবরই অস্বীকার করে আসছে। রাখাইনে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ওই দমন-পীড়নের মুখে প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে।



মন্তব্য