kalerkantho


লাল চুলে হৃদয়হরণ

প্রতিভা অন্বেষণ শোর কল্যাণে তাঁকে আগেই চিনেছিল গোটা ব্রিটেন। গান, টিভি আর চলচ্চিত্র দিয়ে এবার নিজেকে সারা দুনিয়ায় পরিচিত করানোর পালা। ‘বিস্ট’ মুক্তির আগে জেসি বার্কলিকে নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

১০ মে, ২০১৮ ০০:০০



লাল চুলে হৃদয়হরণ

লন্ডনের এক অভিজাত রেস্তোরাঁয় বসে আছেন লাল চুলের তরুণীটি। হঠাৎই ধীরলয়ে বেজে উঠল কিন্নরকণ্ঠে গান। সবাই মগ্ন হয়ে শুনতে লাগল, কেউ কেউ আবার গলাও মেলাল। কিন্তু সেই সুরের অধিকারিণী যে স্বয়ং তাদের মধ্যেই বসে, সেটা কেউ বুঝতেই পারল না। গানের সঙ্গে মেয়েটি অভিনয়ও করেন। তত দিনে জেসি বার্কলি করেছেন দুটি জনপ্রিয় টেলিভিশন সিরিজ। কিন্তু কী এক কারণে বেশির ভাগ সময়ই তাঁকে কেউ চিনতে পারে না। এ নিয়ে অবশ্য তাঁর আনন্দের সীমা নেই, ‘এ যেন এক আশীর্বাদ। শোবিজের মানুষ হয়েও এই সেলফির যুগে নিজের মতো চলাফেরা! জীবনে এর চেয়ে আর কিছু চাওয়ার নেই আমার।’ আয়ারল্যান্ডের ছোট্ট শহর কিলার্নিতে একেবারেই মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম বার্কলির। মায়ের উৎসাহেই গান ও অভিনয়ে আসা। কিন্তু দুটি অভিনয়ের স্কুলে ভর্তির আবেদন বাতিলের তালিকায় চলে গেলে সেই স্বপ্নে বাধা পড়ে। পরে লন্ডনের মঞ্চের জন্য নতুন মুখের সন্ধানে এক ট্যালেন্ট শো ‘আই উড ডু এনিথিং’-এ নাম লিখিয়েই বাজিমাত। বিচারকদের চোখে শ্রেষ্ঠত্ব পেলেও দর্শক ভোটে দ্বিতীয় হয়েই শেষ করতে হয়। তত দিনে নজর কেড়েছেন নির্মাতাদের। ২০১৩ সালে ‘দ্য রয়াল একাডেমি অব ড্রামাটিক আর্ট’ থেকে স্নাতক শেষ করেন জেসি। ছোট পর্দায়ও উপস্থিতি বাড়তে থাকে। ‘ওয়ার অ্যান্ড পিস’, ‘দ্য ওম্যান ইন হোয়াইট’ কিংবা ‘ট্যাবু’ সিরিজে তাঁর স্বতঃস্ফূর্ত অভিনয় সমালোচকদের প্রিয়পাত্রে পরিণত করেছে। একের পর এক আসছে নতুন চলচ্চিত্রে ডাক। এত কিছু পাওয়ার পরও নিজেকে একেবারে সাধারণ ভাবতেই পছন্দ তাঁর, ‘অভিনয়ের স্কুল থেকে ডাক না পাওয়ার হতাশার সময়ই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, কখনোই থামব না। এসবে তাই কিছুই মনে হয় না।’ এ সপ্তাহে মুক্তি পাচ্ছে তাঁর নতুন ছবি ‘বিস্ট’। মাইকেল পিয়ার্সের চলচ্চিত্রটিতে জেসির বিপরীতে আছেন জনি ফ্লিন। থ্রিলারধর্মী ছবিটিতে জেসির চরিত্রটি অ্যান্টিহিরো টাইপের, যা নিয়ে তিনি বলেন, ‘চরিত্রটির বর্ণনা শুনেই আমি অভিনয়ে রাজি হয়ে গিয়েছিলাম। ছবিতে ‘মল’ একই সঙ্গে ভয়ংকর আবার কোমল হৃদয়েরও।’ পরিচালকও উচ্ছ্বসিত জেসিকে প্রধান চরিত্রে পেয়ে। তাঁর মতে, একই সঙ্গে এতগুলো আবেগের নিখুঁত বহিঃপ্রকাশ খুব কম অভিনেত্রীর পক্ষেই ফুটিয়ে তোলা সম্ভব।


মন্তব্য