kalerkantho


বিয়ে করেই মনোবল ফিরে পেলেন নির্বাসিত অ্যাথলেট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ আগস্ট, ২০১৭ ১৭:১০



বিয়ে করেই মনোবল ফিরে পেলেন নির্বাসিত অ্যাথলেট

রিও অলিম্পিকে গিয়েও তার অংশ নেওয়া হয়নি। আগামী ৪ বছরের জন্য তাকে নির্বাসিত করেছে কোর্ট অফ আরবিট্রেশন ফর স্পোর্ট (ক্যাস)। সেই নির্বাসন শেষ হওয়ার কথা ২০১৯ সালে। কিন্তু তার আশা মাস চারেকের মধ্যে সিবিআই তদন্তে তিনি নির্দোষ হয়ে মুক্তি পাবেন। তার ওপর থেকে উঠবে নির্বাসন। এই আশাতেই ভারতের কুস্তিগীর নরসিংহ পঞ্চম যাদব আবার শুরু করেছেন নিবিড় অনুশীলন।  

কিন্তু নরসিংহের ট্রেনিংয়ে এই তীব্রতা এসেছে মাত্র তিন মাস আগে। গত মার্চে ভারতের পেশাদার নারী কুস্তিগির শিল্পী শেওরানকে বিয়ে করার পর। শিল্পী শেওরানের বাড়ি হরিয়ানার হিসারে। ১৪ বছর বয়স থেকে কুস্তি শিখছেন। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে গুয়াহাটিতে সাফ গেমসে তার বিভাগে (৬৩ কেজি) সোনাজয়ের পরই আলোচনায় আসেন শিল্পী।

 

নরসিংহের কোচ জগমাল সিংহ বলেন, 'দুজনের বন্ধুত্বের শুরু নরসিংহের রিও অলিম্পিকে যাওয়ার মাস চারেক আগে।  রিও থেকে ফেরার পর অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়া নরসিংহের নিত্যসঙ্গী ছিল শিল্পী। তারপরই দুজনে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। ' 

তিনি আরও জানান, প্যারিসে আগামী ১৬ আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার পর থেকেই নরসিংহের মুখে আবার দেখা গেছে পুরনো হাসি। ও এমনিতেই খুব চাপা মানসিকতার। খুব কষ্ট পেলেও মুখ খোলে না। কিন্তু এখন স্ত্রীর পদকজয়ের আশায় নিজের কষ্টটা ভুলে ট্রেনিং করছে। ' 

কোচের কথায় সুর মিলিয়ে নরসিংহও বললেন, 'স্ত্রীর পদক মানে তো সেটা আমারই। তাছাড়া শিল্পী প্রতিভাবান কুস্তিগির। আগামীদিনে ও অনেক আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট থেকে পদক জিতবে বলে আমার বিশ্বাস। '

নরসিংহের আসল স্বপ্ন, টোকিও অলিম্পিকে স্বামী-স্ত্রীর জোড়া পদক জয় করে নতুন ইতিহাস গড়া।

-এবেলা


মন্তব্য