kalerkantho


এবার শ্রীলঙ্কার নির্বাচক কমিটিতেও হাথুরুসিংহে!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৩:৫৫



এবার শ্রীলঙ্কার নির্বাচক কমিটিতেও হাথুরুসিংহে!

ছবি: টুইটার

কোচ হিসেবে চন্দ্রিকা হাথুরুসিংহের নিজস্ব একটা স্টাইল আছে। বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কার কোচ হিসেবে তার এই স্টাইল খুব ভালোভাবেই প্রকাশ পেয়েছে। বাংলাদেশের জাতীয় দলে বলতে গেলে তিনিই ছিলেন প্রধান নির্বাচক। তার পছন্দেই নির্বাচিত করা হত স্কোয়াড এবং একাদশ। এবার নিজ দেশ শ্রীলঙ্কাতেও শর্তসাপেক্ষে নির্বাচকমণ্ডলীর একজন হলেন সাবেক টাইগার কোচ।

শ্রীলঙ্কার কোচ হওয়ার আগে হাথুরু শর্ত দিয়েছিলেন, তার কোনো কাজে কেউ নাক গলাতে পারবে না। বোর্ড প্রধান থেকে শুরু করে রাজনৈতিক নেতারাও নয়। হারতে হারতে তলানিতে পৌঁছে যাওয়া জাতীয় দলকে বাঁচাতে হাথুরুর সব শর্ত মেনে নিয়েছিল শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। সেইসব শর্তের মধ্যে অন্যতম ছিল জাতীয় দলের নির্বাচক কমিটিতে তাকে সুযোগ দেওয়া।

এই শর্ত পূরণ করতে গিয়ে বিপাকে পড়ে এসএলসি। কারণ সেখানকার ক্রীড়া আইনে কোচদের এই সুযোগ দেওয়া হয়নি। কিন্তু হাথুরু নাছোড়বান্দা। তাকে সুযোগ দিতেই হবে। হাথুরুসিংহের দাবি মেনে ক্রীড়া আইন সংশোধনের কথাও ভাবছিল তারা। আইন সংশোধন অনেক সময়ের ব্যাপার হওয়ায় শেষ পর্যন্ত নতুন এক উপায় বের করল লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড। এখন থেকে শুধু সফরকালীন নির্বাচক কমিটিতে থাকছেন হাথুরুসিংহে।

এসএলসি প্রেসিডেন্ট থিলাঙ্গা সুমাথিপালা বলেছেন, 'আমাদের সঙ্গে হাথুরুসিংহের দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। আমরা বুঝতে পেরেছি, যদি দলের কাছ থেকে খুব ভালোমানের পারফরম্যান্স আশা করি তাহলে কোচকে শতভাগ সমর্থন দিতে হবে।'

রবিবার এসএলসির ইজিএমে অনুমোদন পেয়েছে হাথুরুকে নির্বাচকমণ্ডলীতে রাখার এই নতুন পদ্ধতি। এ ছাড়া দলকে চাঙ্গা করতে আরও কিছু উদ্যোগ নিয়েছেন হাথুরুসিংহে। তার কথায় ক্রিকেটারদের মানসিক সমস্যা দূর করে উজ্জীবিত করার জন্য একজন মনোবিদ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ান এই মনোবিদ হাথুরু আমলে বাংলাদেশ জাতীয় দলেও বেশ কয়েকবার কাজ করেছেন। সব মিলিয়ে জম্পেশ প্রস্তুতি নিয়েই বাংলাদেশ সফরে আসছে শ্রীলঙ্কা।


মন্তব্য