kalerkantho


বন্ধুত্বের মর্যাদা এবং ফাঁকা শের-ই-বাংলার গ্যালারি

সত্যজিৎ কাঞ্জিলাল   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৯:১০



বন্ধুত্বের মর্যাদা এবং ফাঁকা শের-ই-বাংলার গ্যালারি

ছবি: এএফপি

দেশের যে কোনো ভেন্যুতেই বাংলাদেশের কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ হওয়া মানেই কিছু পরিচিত দৃশ্য চোখের সামনে ভেসে ওঠে। ম্যাচের আগের দিন থেকে স্টেডিয়াম পাড়ায় টিকিটের জন্য লম্বা লাইন। কালোবাজারিতের আনাগোনা। পতাকা, ফেস্টুন বিক্রেতাদের জমজমাট ব্যবসা। পুলিশের সঙ্গে টিকিট প্রত্যাশীদের সংঘর্ষ। আজ ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে এসবের কিছুই ঘটল না! শের-ই-বাংলার গ্যালারি কার্যত ফাঁকাই মনে হল।

আরও পড়ুন: উড়ে গেল জিম্বাবুয়ে

এই ফাঁকা গ্যালারির কারণ খুঁজতে গিয়ে পাওয়া গেল কঠিন বাস্তব এক বিষয়। আজ বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ছিল জিম্বাবুয়ে। ম্যাচটি ২৮.৩ ওভারেই ৮ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ। এমন জয় প্রত্যাশিতই ছিল। যে কারণেই দর্শকরা টিকিটের যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়ে স্টেডিয়ামে যাওয়ার কষ্টটুকু করতে চাননি। বাংলাদেশের ক্রিকেটের অকৃত্রিম বন্ধুদের দলীয় অবস্থা যে এখন খুবই খারাপ!

আরও পড়ুন: ০ বলে ০ রানে আউট হয়ে জিম্বাবুয়ে ওপেনারের 'রেকর্ড'!

একসময় দুই দলের ওয়ানডে লড়াইয়ের হিসাবটা ছিল জিম্বাবুয়ে ১৪, বাংলাদেশ ১। কিন্তু গত ১৪ ম্যাচে হিসাবটা উল্টে গেছে। এখন বাংলাদেশের নামের পাশে ১২ ম্যাচ জয়, আর জিম্বাবুয়ে জিতেছে ২টি। দেশের ক্রিকেটকে ভালোবেসে জাতীয় দলের দায়িত্ব নিয়েছেন সাবেক মহা তারকা হিথ স্ট্রিক। যিনি বাংলাদেশের বোলিং কোচও ছিলেন।

আরও পড়ুন: বার্সাকে নাটকীয় জয় উপহার দিলেন মেসি-সুয়ারেস

আজ মিরপুরের চেনা ড্রেসিংরুমে বসে স্ট্রিক দেখলেন তার সাবেক শিষ্যদের কাছে বর্তমান শিষ্যদের অসহায় আত্মসমর্পণ। রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে হারতে হারতে তলানিতে পৌঁছে যাওয়া জিম্বাবুয়ে ২০১৯ বিশ্বকাপ খেলতে পারবে কিনা তাতে যথেষ্ট সন্দেহ আছে। এই মঞ্চে পৌঁছতে তাদের টপকাতে হবে ক্রিকেটের নতুন শক্তি আফগানিস্তানকে। দুই মাস পর বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে নির্ধারিত হবে জিম্বাবুয়ের ভাগ্য। সেই ভাগ্য গড়তেই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন হিথ স্ট্রিক।

আরও পড়ুন: টাইগার একাদশে অনিয়মিতদের জয়জয়কার

এই সিরিজে জিম্বাবুয়ে কী ফল করবে, কিংবা তারা বিশ্বকাপ খেলবে কিনা তার চেয়েও বড় বিষয় হলো এদেশের ক্রিকেটে জিম্বাবুয়ের অবদান। যে অবদানের কথা, যে বন্ধুত্বের কথা কখনই ভুলবে না বাংলাদেশের ক্রিকেট। আজ হয়ত তাদের দুঃসময় যাচ্ছে। বন্ধু দুঃসময়ে পাশে তো থাকতেই হবে। আগামী ২৩ জানুয়ারি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টাইগারদের ফিরতি ম্যাচে গ্যালারি ভরবে তো?


মন্তব্য