kalerkantho


মিজানের সেঞ্চুরি ম্লান হলো চার হাফ সেঞ্চুরির কাছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ মার্চ, ২০১৮ ২১:০২



মিজানের সেঞ্চুরি ম্লান হলো চার হাফ সেঞ্চুরির কাছে

বৃথা গেল ব্রাদার্স ইউনিয়ন ওপেনার মিজানুর রহমানের সেঞ্চুরি। চার ব্যাটসম্যানের হাফ-সেঞ্চুরিতে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে তৃতীয় জয়ের মুখ দেখল অগ্রণী ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। আজ নিজেদের নবম ম্যাচে অগ্রণী ব্যাংক ৩ উইকেটে হারিয়েছে ব্রাদার্সকে। এই জয়ে ৯ খেলায় ৩ জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ১১তম স্থানে উঠে এল অগ্রণী ব্যাংক। সমানসংখ্যক ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৮ম স্থানে ব্রাদার্স।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে প্রথমে ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ জানায় অগ্রণী ব্যাংক। আগে ব্যাট করার সুযোগটা দারুনভাবে কাজে লাগিয়েছে ব্রাদার্সের দুই ওপেনার মিজানুর রহমান ও জুনায়েদ সিদ্দিক। উদ্বোধনী জুটিতে সাবলীল ব্যাটিংয়ে দলকে ২০০ রানের জুটি উপহার দেন মিজানুর ও জুনায়েদ। ডান-হাতি পেসার শফিউল ইসলামের শিকার হওয়ার আগে ১২০ বলে ৯ চার ও ৩ ছক্কায় ১০২ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন মিজানুর।

মিজানুরের বিদায়ের পর কিছুক্ষণ থেমে যেতে হয় জুনায়েদকে। এবারও শিকার শফিউল। আগের ম্যাচে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের বিপক্ষে ১২৩ রান করা জুনায়েদ এবারও সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন। কিন্তু সেঞ্চুরি থেকে ৮ রান দূরে থাকতে থামতে হয় তাকে। মিজানুর ও জুনায়েদের দেখানো পথে হাটতে পারেনি ব্রাদার্সের পরবর্তী ব্যাটসম্যানরা। বড় সংগ্রহের ভিত্তি পেয়েও শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেটে ২৮৯ রান করতে সক্ষম হয় ব্রাদার্স। অগ্রণী ব্যাংকের শফিউল ৪৮ রানে নেন ৪ উইকেট।

জবাবে শুরুতেই ধাক্কা খায় অগ্রণী ব্যাংক। নিজেদের ইনিংসের প্রথম বলেই শূন্য হাতে ফিরেন বাঁ-হাতি ওপেনার ও অধিনায়ক শাহরিয়ার নাফীস। তার বিদায়ের পর ৮৮ রানের জুটি গড়েন আজমির আহমেদ ও সালমান হোসেন। এতে লড়াইয়ে ফিরে অগ্রণী ব্যাংক। আজমির ৬৫ ও সালমান ৬৩ রান করে আউট হন। মিডল-অর্ডারে বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হয়েছেন উইকেটকিপার ধীমান ঘোষ।

তবে ভারতের ঋষি ধাওয়ান ও জাহিদ জাভেদ দলের প্রয়োজন মিটিয়েছেন। পঞ্চম উইকেটে দুজনের ১০৭ রান দলকে জয়ের পথেই রেখেছিল। কিন্তু দলীয় ২৭৮ রানে ধাওয়ান ও ২৮৪ রানে জাভেদেও আউট বড় সমস্যায় ফেলে দেয় অগ্রণী ব্যাংককে। এরপর দলীয় ২৮৮ রানে থামেন আব্দুর রাজ্জাকও। তবে সাত নম্বরে নামা শামসুল ইসলাম অপরাজিত ৫ রান করে দলের জয় নিশ্চিত করেন। ম্যাচের সেরা হন অগ্রণী ব্যাংকের শফিউল।


মন্তব্য