kalerkantho


'ফাইনালের সেই দুঃসহ স্মৃতি এখনও ভুলিনি'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুলাই, ২০১৮ ২০:৩৬



'ফাইনালের সেই দুঃসহ স্মৃতি এখনও ভুলিনি'

ছবি : এএফপি

ঘরের মাঠে মাত্র দুই বছর আগে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলেছিল ফ্রান্স। পর্তুগালের বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচটিতে অতিরিক্ত সময়ের গোলে হারের দুঃসহ স্মৃতি নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা। দেশ্যম স্বীকার করেছেন ওই ফলাফল এখনো খেলোয়াড়দের মনে গেঁথে আছে। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরে তুলতে পারলে এই পরিস্থিতি পাল্টে যাবে বলে বিশ্বাস দেশ্যমের। 

মঙ্গলবার সেমিফাইনালে বেলজিয়ামকে ১-০ গোলে হারানোর পর ফ্রেঞ্চ কোচ বলেন, 'হ্যাঁ, আমরা এখন আরেকটি ফাইনালে। দুই বছর আগে কি ঘটেছিল এখনো আমার মনে আছে। এবার আমরা ফাইনালে জয়ের জন্যই যাচ্ছি। ইউরোর ফাইনালটি এখনো আমরা কেউ ভুলতে পারিনি।'

বেলজিয়ামের বিপক্ষে জয়সূচক গোলটি করা উমতিতির মনেও ২০১৬ সালের স্মৃতি হতাশার জন্ম দেয়। তিনিও কোচের মতোই বলেছেন, 'আমরা ইউরোর ফাইনাল জিততে পারিনি। সে কারণেই বিশ্বকাপের জয়টা জরুরী। আশা করছি এবার সব পাল্টে যাবে। বিশ্বকাপ জয় করেই আমরা ঘরে ফিরব।'

এখনো পর্যন্ত রাশিয়ায় গোল করতে না পারা তারকা স্ট্রাইকার অলিভার জিরুদ জানিয়েছেন, ছোটবেলা থেকেই তার স্বপ্ন ছিল বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলার, 'এটা আমার ছোটবেলার স্বপ্ন। পরিবার, বন্ধু ও ফ্রান্সের মানুষদের সাথে বিশ্বকাপের স্মৃতি ভাগাভাগি করাটা সত্যিই গর্বের বিষয়। আমাদের এই পথ মোটেই সহজ ছিলনা। কিন্তু আমরা পেরেছি। এখন আর মাত্র ৯০ মিনিটের একটি ম্যাচ বাকি। এই স্মৃতি সত্যিই ভোলার নয়। জিদানের কথা আমার মনে আছে, আশা করছি আমাদের সকলের সামনে যেন সেই একই সুযোগ আসে।

ফ্রান্সের অধিনায়ক ও গোলরক্ষক হুগো লোরিস বলেছেন, 'ফুটবল সত্যিই এক অসাধারন খেলা। কারণ এর মাধ্যমে আমরা আমাদের সমর্থক ও ফ্রেঞ্চ মানুষদের আবেগী করে তুলতে পারি। আশা করছি রবিবার শেষ উৎসবটাও আমরা উদযাপন করব। কোচ যা বলেছে আমরা সেটাই করার চেষ্টা করেছি। ম্যাচের প্রতিটি ক্ষেত্রে আমরা প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছি। দুই বছর আগে স্মৃতি আর পুনরাবৃত্তি করতে চাইনা।'



মন্তব্য