kalerkantho


ঘটনাটি বাংলাদেশে ঘটলে কী হতো? (ভিডিওসহ)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুলাই, ২০১৮ ২১:৪৫



ঘটনাটি বাংলাদেশে ঘটলে কী হতো? (ভিডিওসহ)

রাশিয়ায় চলছে বিশ্বকাপ ফুটবলের মহোৎসব। সারা বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের দৃষ্টি এখন রাশিয়ার দিকে। ফুটবল খেলুড়ে দেশ হিসেবে ক্রোয়েশিয়ার নাগরিকরাও মেতেছে ফুটবল উন্মাদনায়। দল পৌঁছে গেছে সেমিফাইনালে; সাধারণ মানুষ, পুলিশ, রাজনীতিবিদ থেকে শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের ফায়ার ফাইটাররাও বিশ্বকাপ উৎসবে সামিল। এর মধ্যেই ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে পড়া একটি ভিডিও নাড়া দিয়ে গেল বিশ্বকে।

কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে গত ৭ জুলাই মুখোমুখি হয়েছিল স্বাগতিক রাশিয়া এবং ক্রোয়েশিয়া। চরম উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচটির মূল সময় শেষ হয় ২-২ সমতায়। ম্যাচ অবধারিতভাবে গড়ায় টাইব্রেকারে। কোটি কোটি ফুটবলভক্ত চরম উত্তেজনায় দেখছে পেনাল্টি শ্যুটআউট। রাশিয়া থেকে অনেক দূরে নিজ দেশে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে বসে টিভিতে টাইব্রেকার দেখছিলেন ক্রোয়েশিয়ান ফায়ার ফাইটাররা। সেই মুহূর্তে ঘটল ঘটনাটি!

পেনাল্টি শ্যুটআউটের মাঝেই জরুরি ঘণ্টা বেজে উঠল। এর মানে কোথাও আগুন লেগেছে, এখনি ছুটতে হবে। এক সেকেন্ড অপেক্ষা না করে বিশ্বকাপ মাথায় তুলে ফায়ার ফাইটাররা উঠে বসলেন গাড়িতে। সাইরেন বাজিয়ে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে গাড়ি নিয়ে বেড়িয়ে পড়ল একটি দল। গাড়িটিকে বিদায় দিয়ে অফিসে থাকা বাকী তিনজন ফায়ার ফাইটার টিভির সামনে এসে দেখলেন, পেনাল্টি শ্যুট আউটে ৪-৩ ব্যবধানে জিতে গেছে তাদের দেশ ক্রোয়েশিয়া!

বাংলাদেশ বিশ্বকাপে খেলছে না। কখনই খেলেনি। কবে খেলবে তা পুরোপুরি অনিশ্চিত। তারপরেও এদেশে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা নিয়ে চরম উন্মাদনা হয়। টিভির সামনে খেলা দেখেন সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সকল শ্রেণীর মানুষ। খুব জানতে ইচ্ছে করে, ক্রোয়েশিয়ার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনটিতে চরম উত্তেজনাকর মূহূর্তে যে ঘটনাটি ঘটল, সেটি বাংলাদেশে ঘটলে কী হতো? ক্রোয়েশিয়ান ফায়ার ফাইটাররা যে দায়িত্ববোধ আর পেশাদারিত্বের পরিচয় দিলেন; আমাদের জাতীয় এবং সামাজিক জীবনে এমন ঘটনা আদৌ দেখা যায়?

দেখুন ভিডিও : সরাসরি দেখতে না পেলে ক্লিক করুন এই লিংকে। 



মন্তব্য